আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১২:১৯

৫ হাজার প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের অনুমোদন

অনলাইন ডেস্ক
৫ হাজার প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগের অনুমোদন

দীর্ঘ সময় পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগের অনুমোদন দিয়েছে সরকার।

সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) মাধ্যমে শূন্য পদে প্রায় পাঁচ হাজার প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিতে দ্রুতই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্র।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. হুমায়ূন খালিদ বাংলানিউজকে বলেন, সহকারী শিক্ষকদের মধ্য থেকে পদোন্নতি দিয়ে ৬৫ শতাংশ এবং বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের মাধ্যমে বাকি ৩৫ শতাংশ নিয়োগ দেওয়া হবে।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, দেশে বর্তমনে ৬৩ হাজার ৪১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ১৫ হাজারেরও বেশি স্কুলে প্রধান শিক্ষক পদ খালি আছে। এরমধ্যে, নতুন করে সাড়ে চার হাজার প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দিতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। প্রধান শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগযোগ্য চার হাজার ৫১২টি শূন্য পদ পূরণের লক্ষ্যে সরকারি কর্ম কমিশনে প্রস্তাব পাঠানো প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট শাখার কর্মকর্তারা।

মন্ত্রণালয় ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানান, প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকায় বিদ্যালয়গুলোতে একাডেমিক কার্যক্রম বিঘ্ন ঘটছে। কোনো কোনো বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকের পদও শূন্য।

এতে সহকারী শিক্ষকরা প্রধান শিক্ষকের অতিরিক্ত দায়িত্ব পালনে স্থবির হয়ে পড়ছে শিক্ষা কার্যক্রম। এ প্রেক্ষাপটে নিয়োগ দিতে উদ্যোগ নিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। দ্বিতীয় শ্রেণির নন-ক্যাডার পদে নতুন করে ৩৫ শতাংশ প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেবে পিএসসি।

দ্রুত নিয়োগ দিতে প্রধান শিক্ষেকের পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষমতা চেয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় গত মার্চ মাস থেকে চিঠি চালাচালি করছিল। কিন্তু তাতে আর সফলতা আসেনি।

এদিকে সহকারী হিসাবে দায়িত্ব পালনের পর ২০ হাজারেরও বেশি সহকারী শিক্ষক বর্তমানে পদোন্নতির যোগ্য বলে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়। বাকি ৬৫ শতাংশ সহকারী শিক্ষকের মধ্য থেকে পদোন্নতি দিয়ে প্রধান শিক্ষক করা হবে।

উপরে