আপডেট : ৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৫:৩০

১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের

বিডিটাইমস ডেস্ক
১৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের

২০১১ সালে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে উত্তীর্ণ ১৫ হাজার ১৯ জনকে স্থায়ীভাবে নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে উত্তীর্ণদের নিয়োগ না দিয়ে নতুন করে প্রজ্ঞাপন জারি করাকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট।

বুধবার বিচারপিত তারিকুল হাকিম ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর ডিভিশন বেঞ্চ পৃথক পৃথক রিট আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার এম আমীর-উল ইসলাম, শেখ মোহাম্মদ মুরশেদ, সিদ্দিক উল্লাহ মিয়া ও মো. খায়রুল আলম।

রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমাতুল করীম।

আইনজীবী মুরশেদ জানান, ২০১১ সালের আগস্ট মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এ বিজ্ঞপ্তির বিপরীতে ১১ লাখ প্রার্থী আবেদন করেন। লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষা শেষে ২০১২ সালের ১২ আগস্ট ২৭,৭২০ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হন। এর মধ্যে ১২,৭০১ জনকে জনকে নিয়োগ দেয় সরকার।

এর মধ্যে ২০১৪ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর নতুন করে সহকারী শিক্ষক পদে আবার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় সরকার। এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করেন পুল শিক্ষকরা। এ আবেদনের প্রেক্ষিতে একই বছরের ১৯ অক্টোবর বিজ্ঞপ্তি স্থগিত করে রুল জারি করে হাইকোর্ট।

বুধবার এ রুলের নিষ্পত্তি করে রায় দেন হাইকোর্ট। আইনজীবী মুরশেদ আরো জানান, প্রায় ৭২টি রিট ছিল। এসব রিটের আবেদনকারী দুই থেকে আড়াই হাজার হতে পারেন। হাইকোর্ট এসব আবেদনকারী পুল শিক্ষকদের নিয়োগ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। আর তাদের নিয়োগের আগে নতুন করে কোনো নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি বা নিয়োগ না দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

 

উপরে