আপডেট : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৯:৪৯

হাত নেইতো কি হয়েছে, পা দিয়েই এসএসসি দিচ্ছে আরিফা

বিডিটাইমস ডেস্ক
হাত নেইতো কি হয়েছে, পা দিয়েই এসএসসি দিচ্ছে আরিফা

জন্ম থেকেই দুই হাত অচল আরিফার। তাই বলে দমে থাকেনি সে। হাইস্কুলের গন্ডি পেরিয়ে আজ এসএসসি পরীক্ষার্থী। পা দিয়ে লিখেই এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে সে।

প্রতিবন্ধী আরিফা খাতুন লালমনিরহাট সদরের ফুলগাছ উচ্চ বিদ্যালয়ের মানবিক শাখা থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করছে। লালমনিরহাট সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রতিবন্ধী এই পরীক্ষার্থীর জন্য দেয়া হয়েছে অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময়।

পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে সবার ছোট আরিফা খাতুন পড়াশুনায় বেশ মনোযোগী। তার অপর দুই ভাই ও দুই বোন স্বাভাবিক হলেও আরিফা জন্মের পরই প্রতিবন্ধী হয়ে যায়। বাবা আব্দুল আলী একজন দিনমজুর আর মা মমতাজ বেগম ঘর গৃহিনী। সদর উপজেলার খোড়ারপুল শাহীটারী গ্রামের অধিবাসী দিনমজুর আব্দুল আলী তার প্রতিবন্ধী মেয়েকে পড়াশুনা করাচ্ছেন অতিকষ্টে।

আরিফা খাতুন স্থানীয় রায়পাড়া ব্র্যাক প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেনী পাস করে ভর্তি হয় ফুলগাছ উচ্চ বিদ্যালয়ে। মেধা তালিকায় পঞ্চমে থাকা আরিফা এসএসসি পরীক্ষায় ভালো ফলাফল করবে আর এমনটিই বিশ্বাস আরিফার শিক্ষক, সহপাঠী, প্রতিবেশী ও বাবা-মায়ের।

তার স্বজনরা জানান, আরিফা খাতুনের দুটি হাতই সম্পুর্ন অচল হওয়ায় পা দিয়ে তাকে করতে হয় সব ধরনের কাজ। লেখা, আঁকা, পানি পান করা, মাথায় চিরুনী দেয়া এর সবই পা দিয়ে করে সে। মা মমতাজ বেগম তাকে খাইয়ে দেন, গোসল করিয়ে দেন আর পোশাক পড়তে সহযোগিতা করেন।

শারিরীক প্রতিবন্ধী আরিফা খাতুন অদম্য ইচ্ছা থেকে পড়াশুনা করছে আর উচ্চ শিক্ষিত হয়ে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্ন দেখে সে। কিন্তু দারিদ্রতা তার জন্য অনেকটাই প্রতিবন্ধকতা তৈরী করছে। দারিদ্র আর শাররিীক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে আরিফা একদিন লালিত স্বপ্নকে বাস্তব রুপ দিতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে