আপডেট : ২৭ মে, ২০১৯ ১৪:১৩

অবশেষে সেই পর্নো ভিডিও নিয়ে মুখ খুললেন মাহি

অনলাইন ডেস্ক
অবশেষে সেই পর্নো ভিডিও নিয়ে মুখ খুললেন মাহি

ঢাকাই সিনেমার অগ্নিকন্যা খ্যাত নায়িকা মাহিয়া মাহি। বিয়ের পর কিছুটা বিরতি নিয়ে ফের কাজ ফিরেছেন এই নায়িকা। কিন্তু ফিরতে না ফিরতেই হোঁচট খেতে হলো মাহিকে।

কিছু দিন আগে মাহির ভ্যারিফাইড অফিসিয়াল ফেসবুক পেজটি হ্যাকড হয়। পরে সেই পেজ থেকে থেকে গত শনিবার সকালে একটি বিব্রতকর অশ্লীল ভিডিও আপ করা হয়। মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায়। এক মিলিয়ন লাইক পাওয়া ভ্যারিফাইড পেজটিতে এমন ভিডিও আপ হওয়ায় বেশ নিন্দা করছেন ভক্তরা।

বিষয়টি নিয়ে ঘটনার দিন মাহি চুপ থাকলেও অবশেষে মুখ খুলেছেন তিনি। মাহি মাহি জানান,গত ২৩ মে ভোর রাত থেকে আইডি ও পেজ নিয়ন্ত্রণে ছিলো না তার। এমন কি তার ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডিও ডিজেবল হয়ে যায়। শুধু সচল থাকে পেজ। পেজটি সচল থাকলেও তা নিয়ন্ত্রনে চলে যায় হ্যাকারদের। আর তারাই আপ করে আপত্তিকর ভিডিও। পরবর্তীতে ভিডিওর বিষয়টি আমার কানে গেলে ৯৯৯-এ যোগাযোগ করে সরানো হয় ভিডিও।

সবার উদ্দেশ্যে মাহি প্রশ্ন রেখে বলেন, আমি ফেসবুকে ঘনঘন পোস্ট করি। একটু বেশিই ফেসবুকে অ্যাকটিভ। এটাই কী আমার অপরাধ? আমার প্রথম আইডি সামিরা আকতার নিপা মাহি। যেটা গত বছর হ্যাকড হয়। পরে আবার আইডি খুলি। কারণ ফেসবুকে তো এখন আমাদের যোগাযোগের অন্যতম মাধ্যম। এবার সেই আইডিও হ্যাক হয়। আমার আমার সঙ্গেই কেন বার বার এমনটা হচ্ছে?

২০১২ সালে ‘ভালোবাসার রঙ’ছবির মাধ্যমে ঢাকাই ছবিতে অভিষেক হয় মাহির। এরপর বেশ কয়েকটি হিট চলচ্চিত্র উপহার দিয়ে বিয়ে করে বেশ আড়ালে চলে যায়। তবে সম্প্রতি ফের কাজে ফিরেছেন এই নায়িকা।

এদিকে ফেসবুক পেইজের মূল অ্যাডমিন মাহি নন। জাজ মাল্টিমিডিয়াতে কাজ করার সময় এটা জাজ থেকে খুলে দেয়া হয়েছিল। ২০১৫ সাল জাজ মাল্টিমিডিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক ফাটলের পর পেজটি জাজ কর্তৃপক্ষে তাদের নিয়ন্ত্রণে রেখে দেয়। ৭ লাখের অধিক ছিলো সেই পেজের ফলোয়ার।

পরে চার বছর পর সম্প্রতি পেজটি মাহিকে ফেরত দেয় জাজ। আর নিজের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার পরই হ্যাকাদের কবলে পড়ে মাহির সেই পেইজ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম  

উপরে