আপডেট : ৬ মার্চ, ২০১৯ ১৭:১৬

ইলিয়াস কাঞ্চনকে গ্রেপ্তার করা যেত, যদি...

অনলাইন ডেস্ক
ইলিয়াস কাঞ্চনকে গ্রেপ্তার করা যেত, যদি...

সঙ্গে পিস্তল নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের স্ক্যানিং মেশিন পার হন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন। বৈধ পিস্তলের ক্ষেত্রে নিয়মানুযায়ী বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্র নিতে হয়। কিন্তু তা না করে ভুলবশত ছাড়পত্র ছাড়াই বিমানবন্দরে প্রবেশ করেন তিনি।

ইলিয়াস কাঞ্চন বলছেন, মঙ্গলবার বিকেলে নভোএয়ারের ভিকিউ-৯০৯ ফ্লাইটে শাহজালাল বিমানবন্দর হয়ে চট্টগ্রামে যাচ্ছিলেন। তার ব্যাগে থাকা লাইসেন্স করা পিস্তলটি বাসায় রেখে আসতে ভুলে যান। এরই মধ্যে বিমানবন্দরের প্রবেশ গেটে ব্যাগটি তল্লাশি করা হয়। নভোএয়ারের বোর্ডিং কাউন্টারে এসে ব্যাগে থাকা পিস্তলের কথা মনে পড়ে ইলিয়াস কাঞ্চনের। স্ক্যানিং মেশিনে পিস্তল ধরা না পড়ায় তিনি অবাক হন। পরে এ ব্যাপারে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন ইলিয়াস কাঞ্চন। তাৎক্ষণিক শাহজালাল কর্তৃপক্ষ তার কাছে দুঃখ প্রকাশ করে বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) মুখপাত্র রেজাউল করিম বলেন, ঘোষণা ছাড়া বিমানবন্দরে পিস্তল নিয়ে প্রবেশের অপরাধে সিভিল এভিয়েশন ইলিয়াস কাঞ্চনকে গ্রেফতার করতে পারতো। যেহেতু তিনি (ইলিয়াস কাঞ্চন) দেশের একজন সম্মানী ব্যক্তি, তাই তাকে পিস্তল বহনের নিয়মগুলো ব্রিফ করে ছেড়ে দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, নভোএয়ারের বুকিং কাউন্টারে গিয়ে ইলিয়াস কাঞ্চন জানান, ৯ এমএম পিস্তল আর ১০ রাউন্ড গুলি ভুলবশত সঙ্গে নিয়ে এসেছেন তিনি। বিমানবন্দরে দুই দফা ব্যাগ ও দেহ তল্লাশি করা হলেও পিস্তলটা শো করেনি।

এ ঘটনায় বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৫ কর্মী বরখাস্ত ছাড়াও তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে