আপডেট : ২৩ এপ্রিল, ২০১৮ ২২:০৬

রাজীবের দুই ভাইয়ের দায়িত্ব নিলেন অনন্ত জলিল

অনলাইন ডেস্ক
রাজীবের দুই ভাইয়ের দায়িত্ব নিলেন অনন্ত জলিল
রাজধানীতে বেপরোয়া দুই বাসের চাপায় হাত হারানোর পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করা তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব হোসেনের ছোট দুই ভাই মেহেদি হাসান ও আবদুল্লাহর দায়িত্ব নিলেন অভিনেতা অনন্ত জলিল। রবিবার সাভারের হেমায়েতপুরে নিজস্ব ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে তাদের ডেকে নিয়ে প্রতিশ্রুতি রাখলেন তিনি। এ সময় তাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন রাজীবের খালা ও মামা।

এর আগে, রাজীবের অসহায় ছোট দুই ভাইয়ের দায়িত্ব নিতে চেয়ে গত ১৭ এপ্রিল ফেসবুকে নিজের ভেরিফায়েড পেজে স্ট্যাটাস দেন অনন্ত জলিল। এ ঘোষণা দেওয়ার সময় তিনি পবিত্র ওমরাহ পালনের জন্যে সৌদি আরবে সপরিবারে অবস্থান করছিলেন। তারপর দেশে ফিরে রাজীবের দুই ভাইকে খবর দিয়ে নিয়ে এসে নিজের প্রতিশ্রুতি রাখলেন চিত্রনায়ক-প্রযোজক ও দেশের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী অনন্ত জলিল। 

অনন্ত জলিল বলেন, 'তাদের দায়িত্ব নিতে পেরে আমার বেশ ভালো লাগছে। আশা করি, ওরা নিজেদের জীবন গড়ে নিতে পারবে। তারা তাদের খালা-মামার কাছেই থাকবে। আমি তাদের সব খরচ বহন করবো।'

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল দুপুরে বিআরটিসির একটি দোতলা বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে গন্তব্যের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব হোসেন। বাসটি হোটেল সোনারগাঁওয়ের বিপরীতে পান্থকুঞ্জ পার্কের সামনে পৌঁছলে হঠাৎ পেছন থেকে স্বজন পরিবহনের একটি বাস বিআরটিসি বাসটির গা ঘেঁষে অতিক্রম করে। দুই বাসের প্রবল চাপে গাড়ির পেছনে দাঁড়িয়ে থাকা রাজীবের হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রাজীবের বাবা-মা কেউ বেঁচে নেই। তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনি সবার বড় ছিলেন। পড়ালেখার পাশাপাশি একটি প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার টাইপ করে তিনি নিজের এবং ছোট দুই ভাইয়ের খরচ চালাতেন। কিন্তু ১৬ এপ্রিল (সোমবার) রাত ১২টা ৪০ মিনিটের দিকে ঢাকা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে