আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৯:২০

ইতিহাস সৃষ্টি করবে ‘ঢাকা অ্যাটাক’

অনলাইন ডেস্ক
ইতিহাস সৃষ্টি করবে ‘ঢাকা অ্যাটাক’

চলতি বছরে বাংলা চলচ্চিত্রে বহুল প্রতীক্ষিত ছবিগুলোর মধ্যে অন্যতম দীপংকর দিপন পরিচালিত আলোচিত ছবি ‘ঢাকা অ্যাটাক’। ছবিটি এরইমধ্যে দর্শকের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে। আসছে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহেই মুক্তির প্রতীক্ষায় থাকা ছবিটি ঢাকাই চলচ্চিত্রে প্রচার প্রচারণা নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছে, যা আগে দেখা যায়নি। আর এসব কিছু মিলিয়ে ধারনা করা হচ্ছে, ঢাকাই চলচ্চিত্রে ইতিহাস করতে যাচ্ছে ঢাকা অ্যাটাক!

প্রচার প্রচারণায় নতুন নতুন কৌশল অবলম্বন করছে ঢাকা অ্যাটাক টিম। এরইমধ্যে বলিউড স্টাইলে ছবির টিজার, পোস্টার আর এবার মোশন পোস্টারও রিলিজ দিলো তারা। যা বাংলা সিনেমায় দেখা যায়নি। 

টেকনোলজির সর্বোচ্চ সহায়তা নিয়ে প্রচারে ভিন্নতা আনছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ টিম। যা বাংলাদেশের জন্য ইতিহাস তৈরি করবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা। এ বিষয়ে ঢাকা অ্যাটাক পেইজটি থেকে জানানো হয়, বদলে যাচ্ছে বাংলা সিনেমার দিগন্ত। যুক্ত হচ্ছে টেকনোলজির নানা অনুষঙ্গ। তাই এখন সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দু বাংলাদেশের প্রথম পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলার মুভি ‘ঢাকা অ্যাটাক’। আর সাথে থাকুন আমাদের। আপনারা সাথে থাকলে আরো অনেক অনেক ইতিহাস গড়বে ‘ঢাকা অ্যাটাক’।

অন্যদিকে প্রথম পোস্টার মুক্তির পর এবার ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবির দ্বিতীয় পোস্টারও প্রকাশ করা হয়েছে। যা আগের পোস্টারটির মতোই সিনেপ্রেমীদের প্রশংসা কুড়াচ্ছে।

প্রথম পোস্টার রিলিজের পর ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিটি নিয়ে বাংলা ছবির দর্শক এক সময়ে গর্ব করবেন জানিয়ে নির্মাতা জানিয়ে ছিলেন, পোস্টারটির প্রতি অসংখ্য মানুষের ভাললাগা আর ভালবাসা সিনেমাটির প্রতি তাদের আকাঙ্ক্ষার মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। বিষয়টি সিনেমাটির জন্য একদিকে যেমন ভাল, তেমনি অন্যদিকে একটা বড় চ্যালেঞ্জও বটে। কেননা, এই আকাঙ্ক্ষা যদি শতভাগ পূরণ করতে না পারি। তবে আমরা আশাবাদী যে, দর্শক ভিন্ন রূপে নিজের দেশ এবং দেশের সক্ষমতা দেখতে পাবে এই সিনেমায়। তারা আশাবাদী হবে, পুলকিত হবে এবং সিনেমাটিকে নিজেদের সিনেমা হিসেবে অহংকার করবে। 

আসছে ৬ অক্টোবর দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ‘ঢাকা অ্যাটাক’। বাংলাদেশের প্রথম পুলিশ অ্যাকশন থ্রিলারধর্মী ছবিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ ও মাহিয়া মাহি। ছবিতে আরো গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক আলমগীর, হাসান ইমাম, এবিএম মুসা এবং কাজী নওশাবা আহমেদ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে