আপডেট : ১১ মার্চ, ২০১৬ ১৭:২৯

বিতর্কের মুখে অরিজিৎ সিংয়ের কনসার্ট!

বিনোদন ডেস্ক
বিতর্কের মুখে অরিজিৎ সিংয়ের কনসার্ট!

পরিচালনাধীন প্রতিষ্ঠান ধানসিঁড়ির আয়োজনে রাজধানী ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে ভারতের কণ্ঠশিল্পী অরিজিৎ সিংয়ের কনসার্টটি নানা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। কথা ছিল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার কনসার্টটিতে অরিজিতের পাশাপাশি গাইবেন স্থানীয় কণ্ঠ তারকা এলিটা ও ক্লোজআপ ওয়ান তারকা মাহাদি।

কিন্তু আসরের পর্দা নামার ঠিক ঘণ্টাখানেক আগে দেশীয় কণ্ঠ তারকা মাহাদি ও এলিটা নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় বিতর্ক চরমে উঠেছে। পাশাপাশি সঙ্গীতাঙ্গনেও বিষয়টি বেশ জল ঘোলা করেছে। ক্ষোভ প্রকাশ করে জনপ্রিয় এক ব্যান্ড তারকা বললেন, গেল কয়েক বছর ধরেই আমাদের দেশের কিছু ইভেন্ট প্রতিষ্ঠান দেশীয় শিল্পীদের হেয় করে বিদেশি, বিশেষ করে ভারতীয় শিল্পীদের প্রাধান্য দিয়ে কনসার্ট আয়োজন করছে। এটা দুঃখজনক। আজকের ঘটনাটিও তেমনি। শমী কায়সারের মতো একজন বরেণ্য অভিনেত্রীর কাছে কেউ এমন ঘটনা আশা করে না।

তবে শমী কায়সারের সঙ্গে কোনোর্রপ ভুল বোঝাবুঝি হয়নি বলেই জানালেন এলিটা। তিনি জাগো নিউজকে বললেন, শমী আপা আমার খুব প্রিয় একজন মানুষ। উনার কনসার্টে গাইতে পারলে আমার খুবই ভালো লাগতো। কিন্তু সময়ের অভাবে সেটি হয়নি।

বেশ কিছু গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, এই কনসার্ট নিয়ে আপনি সন্তুষ্ট ছিলেন না- এ বিষয়ে কী বলবেন? জবাবে এলিটা বলেন, এটা একদমই ঠিক কথা নয়। আমি শমী আপাকে গেল ৫ তারিখেই জানিয়েছি যে এই কনসার্টে গান গাইতে পারবো না। এ বিষয়ে আমাদের মিচুয়াল আলাপ হয়েছে। তবু যারা বিষয়টি নিয়ে ভুল সংবাদ করছেন তাদের বলবো যে এমনটি না করাই ভালো। দেখুন, একজন শিল্পী অনেক কারণেই কনসার্ট থেকে সরে দাঁড়াতে পারেন। এখানে নেতিবাচক কিছু খুঁজতে যাওয়া ঠিক নয়।

এদিকে এই কনসার্টে গান না গাওয়া প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি ক্লোজআপ ওয়ান তারকা মাহাদি। এলিটা সরে দাঁড়ানোর স্বাভাবিক কারণ দেখালেও মাহাদির নীরবতায় অনেকে দুয়ে দুয়ে চার মিলাচ্ছেন।

এখানেই শেষ নয়, অরিজিৎকে নিয়ে আয়োজিত কনসার্টে সাংবাদিকদেরও অবমূল্যায়নের মাধ্যমে বিতর্কের জন্ম দিয়েছে ধানসিঁড়ি। গেল দুই মাস ধরেই প্রতিষ্ঠানটি গণমাধ্যমে কনসার্টটি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করিয়েছেন। কথা ছিল বৃহস্পতিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন হবে অরিজিতকে নিয়ে। কিন্তু সাংবাদিকরা এ বিষয়ে বারবার যোগাযোগ করেও কোনো তথ্য পাননি।

পাশাপাশি কনসার্টের এক ঘণ্টা আগেও ধানসিঁড়ি সাংবাদিকদের পাস নিশ্চিত কর‍তে পারেনি। এ নিয়ে বেশ কিছু গণমাধ্যম ক্ষোভ প্রকাশ করলে ঠিক আধ ঘণ্টা আগে ফোন করে কনসার্টে যাওয়ার জন্য অনুরোধ করেন ধানসিঁড়ি থেকে পিআরের দায়িত্ব পাওয়া কর্মকর্তা।

কিন্তু কনসার্টে গিয়ে আবারো বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় সংবাদকর্মীদের। প্রতিষ্ঠানটি খবর সংগ্রহের জন্য প্রতিবেদকদের প্রবেশের পাস দিলেও ফটোগ্রাফারদের ঢুকতে বাধা দেন। এ নিয়ে অনেকক্ষণ তর্ক-বিতর্ক চলে।

এসময় সাংবাদিকরা শমী কায়সারের সঙ্গে কথা বলার জন্য আর্মি স্টেডিয়ামের গেটে কর্তব্যরত ধানসিঁড়ির কর্মকর্তাদের অনুরোধ করলে তারা সাংবাদিকদের জবাব দেন, শমী কায়সার বললেও ফটোগ্রাফার প্রবেশ করতে পারবেন না। অবশেষে সংবাদকর্মীরা অনুষ্ঠান বয়কট করে চলে আসেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে