আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:২৯

ভাবির হাতের রগ কাটল দেবর

বিডিটাইমস ডেস্ক
ভাবির হাতের রগ কাটল দেবর

মাদারীপুর সদর উপজেলার সুচিয়ারভাঙ্গা গ্রামে গত শুক্রবার বিকেলে বড় ভাবির হাতের রগ কেটে দিয়েছে নেশাগ্রস্ত দেবর।

স্থানীয়, পারিবারিক ও আহত গৃহবধূ সূত্রে জানা গেছে, ঢাকার আনিছুর রহমান রানার মেয়ে মিষ্টি বেগমের সঙ্গে (২৩) সুচিয়ারভাঙ্গা গ্রামের কাশেম সেরনিয়াবাতের ছেলে ফেরদাউস সেরনিয়াবাতের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাঁদের একটি মেয়ে হয়। পরে স্বামী দুবাই চলে যান। এরপর থেকে নেশাগ্রস্ত দেবর আলী সেরনিয়াবাত ওই গৃহবধূকে নানাভাবে নির্যাতন করতে থাকে। এরই জের ধরে নেশার টাকার জন্য শুক্রবার বিকেলে গৃহবধূকে দা দিয়ে আঘাত করে। এতে তাঁর মাথার কিছু অংশসহ হাতের রগ কেটে যায়। এ ঘটনায় পরিবারের লোকজন ওই গৃহবধূকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে ঘটনাটি শনিবার দুপুরে ওই গৃহবধূ সাংবাদিকদের জানান। সরেজমিনে হাসপাতালে গেলে গৃহবধূকে যন্ত্রণায় ছটফট করতে দেখা যায়।

গৃহবধূ মিষ্টি বেগম বলেন, ‘আমার দেবর নেশা করে। নেশার টাকার জন্য আমাকে প্রায় চাপ সৃষ্টি করে। সেই সঙ্গে আমার স্বামী বিদেশ থাকায় প্রায় নানা ধরনের নির্যাতন করে। আমি এ নির্যাতন থেকে মুক্তি চাই।’ শাশুড়ি ইজ্জাতন বেগম বলেন, ‘আমার ছেলের মাথায় সমস্যা আছে। তাই এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে আমি আমার বড় ছেলের বউকে নিজ দায়িত্বে হাসপাতালে ভর্তি করে তার চিকিৎসার করে যাচ্ছি।’

মাদারীপুর মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মাহমুদা আক্তার কণা বলেন, ‘গৃহবধূর ব্যাপারে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে।’ মাদারীপুর থানার ওসি মো. জিয়াউল মোর্শেদ বলেন, ‘অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম

 

উপরে