আপডেট : ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৫ ১৮:৫৮

বন্দি নারীদের যৌনদাসী বানানোর ফতোয়া দিল আইএস

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক
বন্দি নারীদের যৌনদাসী বানানোর ফতোয়া দিল আইএস

আইএস’র হাতে আটক নারীরা যৌনদাসী হবে- এমনই একটি নির্দেশনামা জারি করেছে ইসলামিক স্টেটের নীতি নির্ধারকরা।

আইএস অধ্যুষিত বিভিন্ন এলাকা থেকে বন্দি করে নিয়ে আসা মহিলাদের সঙ্গে ঠিক কী রকম আচরণ করা হবে, তা নিয়ে বহু দিন ধরেই চর্চা চলছে আইএস-এ। বন্দি নারীদের উপর নিয়মিত যৌন নির্যাতন চালায় জঙ্গিরা, এমন অভিযোগ উঠেছে বহুবার।

আইএস’র হাত থেকে পালিয়ে এসেছেন যে সব নারী, তারাই বিভিন্ন সময় সংবাদমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন সেসব কথা।

সংবাদসংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে জানা যায়, আইএস’র কিছু গোপন নথি তাদের কাছে রয়েছে। নথিতে বন্দি নারীদের কখন এবং কিভাবে যৌন দাসী বানানো উচিত তার বিস্তারিত ধর্মীয় ব্যাখ্যা দিয়ে একটি ফতোয়া জারি করা হয়েছে আইএস-এর নীতি-নির্ধারকদের পক্ষ থেকে।

নানা রকম বিকৃত যুক্তি ও ইতিহাস উদ্ধৃত করে সেখানে বলা রয়েছে কেন বন্দিদের সঙ্গে জোর করে শারীরিক সংসর্গ করা উচিত জিহাদিদের।

আরো বলা হয়, কোন বন্দি নারীর যদি দু’জন মালিক থাকে, তবে দু’জনেই তাকে যৌনতার জন্য ব্যবহার করতে পারে। তবে দুএকটি বিধি-নিষেধও রয়েছে ওই নির্দেশনামায়।

তাতে বলা হয়, বাবা এবং ছেলে একই দাসীর সঙ্গে যৌন সংসর্গ করতে পারবে না। আবার মা ও মেয়ে দু’জনেরই মালিক যদি হয়ে থাকে একজন, তবে সে একসঙ্গে দু’জনকেই যৌনদাসী বানাতে পারবে না।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে