আপডেট : ১০ মে, ২০১৯ ১০:১৩

পয়েন্ট হারানোয় হতাশ টাইগার কোচ

অনলাইন ডেস্ক
পয়েন্ট হারানোয় হতাশ টাইগার কোচ

টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে স্বাগতিক আয়ারল্যান্ডকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে বোনাস পয়েন্টসহই ম্যাচ শেষ করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেই ক্যারিবীয়দের হেসেখেলে হারিয়ে আইরিশদের বিপক্ষে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের লক্ষ্যটাও ছিলো এরকমই।

কিন্তু বৃষ্টির কারণে সে লক্ষ্য পূরণ হয়নি। কোনো বল খেলা দূরে থাক, টসই হয়নি ম্যাচের। তাই আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই টাইগারদের ফিরতে হয়েছে টিম হোটেলে। কিন্তু বোনাস পয়েন্টের আশা নিয়ে এমন পরিণতিতে বেশ হতাশ পুরো বাংলাদেশ শিবির।

যা বেরিয়ে এসেছে কোচ স্টিভ রোডসের কণ্ঠে। বোনাস পয়েন্ট না হলেও অন্তত ম্যাচটি জিতে পূর্ণাঙ্গ ৪ পয়েন্ট পেতে উন্মুখ ছিলো বাংলাদেশ দল। তা না হওয়ায় টুর্নামেন্টে নিজেদের পরিকল্পনাতেও রদবদল আনতে বাধ্য হচ্ছে টাইগাররা।

ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার পর হতাশাভরা কণ্ঠে সংবাদ মাধ্যমে রোডস বলেন, ‘সত্যি বললে একটু হতাশই আমরা।খুব করে এই ম্যাচটি জিততে চাইছিলাম আমরা। আবাহাওয়া নিয়ে আমরা হতাশ, তবে এক্ষেত্রে করার তো কিছুই নেই। মিশ্র অনুভূতি সত্যি বলতে। তবে নিশ্চিতভাবেই ২ পয়েন্টের বেশি চাইছিলাম আমরা।’

তবে ২ পয়েন্ট পেলেও তিন দলের সমান ২ ম্যাচ শেষে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে বাংলাদেশ দল। বোনাস পয়েন্টসহ পাওয়া জয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ঝুলিতে রয়েছে ৫ পয়েন্ট। আর বৃষ্টির কল্যাণে আইরিশদের নামের পাশেও দেখা ২টি পয়েন্ট।

টুর্নামেন্টের এই অবস্থায় আরও ২টি করে ম্যাচ খেলবে দলগুলো। সবার ৪ ম্যাচ হয়ে গেলে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুই দলকে নিয়েই হবে ফাইনাল। আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ায় এখন ফাইনাল নিয়েই খানিক বিচলিত টাইগার কোচ। রোডসের মতে বোনাস পয়েন্টের হিসেবটা গোলমেলে করে দিতে পারে সবকিছু।

তিনি বলেন, ‘এই টুর্নামেন্টর নিয়মটা একটু অন্যরকম। কারণ বোনাস পয়েন্টসহ জিতলে ৫ পয়েন্ট। সেখানে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়া মানে ৩ পয়েন্ট হারানো। আমরা যে পয়েন্ট পদ্ধতিতে অভ্যস্ত, সেখানে জিতলে পাই ২ পয়েন্ট, খেলা না হলে ১। আজকে আমরা বোনাস পয়েন্টের চেষ্টাই করতে পারলাম না। সেদিক থেকে আমরা হতাশ।’

এদিকে আবহাওয়ার কারণে অনুশীলন নিয়েও শঙ্কিত টাইগার কোচ। তিনি বলেন, ‘বছরের এই সময়টাতে আয়ারল্যান্ড ও ইংল্যান্ডে ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়া অস্বাভাবিক নয়। তবে সামনেও অনেক খেলা আছে। দুর্ভাবনার ব্যাপার হবে যদি কালকেও বৃষ্টি হয়। কারণ কাল অনুশীলন আছে আমাদের। সেটিও করতে না পারলে খারাপ হবে। আশা করি আবহাওয়া ঠিক থাকবে।’

আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হওয়ায় স্কোয়াডের বাইরে যে ৪ জন রয়েছেন দলের সঙ্গে, তাদের খেলার সম্ভাবনাও কমে গিয়েছে বলে মনে করছেন রোডস। তার ভাষ্যে, ‘আজকের ম্যাচটি জিতলে সামনে হয়তো আমরা ওদের পরখ করতে পারতাম। তা হলো না, কেবল দুটি পয়েন্টই পেলাম। ওদের কয়েকজনের খেলার সম্ভাবনা তাতে কিছুটা হলেও কমে গেল, যা খুবই হতাশার।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে