আপডেট : ১৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১৮:৫৪

আরব আমিরাতে ইতিহাস গড়তে চলেছে অস্ট্রেলিয়া!

অনলাইন ডেস্ক
আরব আমিরাতে ইতিহাস গড়তে চলেছে অস্ট্রেলিয়া!

সংযুক্ত আরব আমিরাতে পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলছে অস্ট্রেলিয়া, তা তো সকলেরই জানা। কিন্তু এরই ফাঁকে নতুন এক ইতিহাসও গড়তে চলেছে তারা। নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসে প্রথমবারের মত সংযুক্ত আমিরাতের সাথে একটি অফিশিয়াল ক্রিকেট ম্যাচ খেলবে তারা।

এতদিন পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়াই ছিল একমাত্র টেস্ট খেলুড়ে দল যারা কখনোই সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাথে কোনো অফিশিয়াল ম্যাচ খেলেনি। তবে এবার ঘুচতে চলেছে সেই অপূর্ণতা। পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজের আগে আগামী ২২ অক্টোবর তারা একটি স্বীকৃত আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ খেলবে আয়োজক দেশটির সাথে। ঐতিহাসিক এই ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়াম কমপ্লেক্সে।

সংযুক্ত আরব আমিরাত এই মুহূর্তে আইসিসি টি-২০ র‍্যাংকিংয়ের ১৩ নম্বর দল। ১৯৯৪ সাল থেকে এযাবৎকালের মধ্যে তারা মোট ৭২টি অফিশিয়াল ম্যাচ খেলেছে, এবং অংশ নিয়েছে দুইটি বিশ্বকাপেও। কিন্তু তবু অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হওয়ার সৌভাগ্য হয়নি কখনোই।

শেষবার অস্ট্রেলিয়া ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের দেখা হয়েছিল ২০১৫ বিশ্বকাপের আগে একটি আন-অফিশিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচে। মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে অনুষ্ঠিত সেই ম্যাচে ইনজুরি থেকে ক্রিকেটে ফিরেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার মাইকেল ক্লার্ক, আর তার দল হেসে-খেলে তুলে নিয়েছিল ১৮৮ রানের বিশাল ব্যবধানের এক জয়।

আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাচক ওয়ালিদ বুখাটির মতে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে আসন্ন ম্যাচটি তার দলকে দেবে কোনো একটি শীর্ষস্থানীয় আন্তর্জাতিক দলের সাথে খেলার এক সুবর্ণ সুযোগ।

‘এই ম্যাচের মাধ্যমে অসাধারণ একটি পরীক্ষা হয়ে যাবে আমাদের খেলোয়াড়দের। আমরা চাই তারা যেন চাপের সম্মুখীন হয়, এবং র‍্যাংকিংয়ের উপরের দলগুলোর সাথে খেলার চ্যালেঞ্জ গ্রহণের মাধ্যমে নিজেদের লক্ষ্য দৃঢ় করতে সচেষ্ট হয়। এরকম সুযোগ যাতে নিয়মিত আসে, সেজন্য সহযোগী দেশগুলোর পাশে এসে দাঁড়ানো উচিৎ আইসিসি ও পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর।’

যদিও বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা ১৬ থেকে ১০-এ নেমে আসায় আগামী বছর অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপে খেলতে পারবে না সংযুক্ত আরব আমিরাত, তবে এ বছরের শুরুতে জিম্বাবুয়েতে অনুষ্ঠিত একটি বাছাই টুর্নামেন্টের মাধ্যমে তারা ফিরে পেয়েছে তাদের ওয়ানডে স্ট্যাটাস।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে