আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২২:৪৮

এশিয়া কাপে বাংলাদেশের নাটকীয় জয় নিয়ে যা বললেন আশরাফুল

অনলাইন ডেস্ক
এশিয়া কাপে বাংলাদেশের নাটকীয় জয় নিয়ে যা বললেন আশরাফুল

বাঁচা-মারার লড়াইয়ে এশিয়া কাপে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩ রানের নাটকীয় জয় এসেছে মোস্তাফিজুর রহমানের শেষ ওভারের বোলিং ভেলকিতে।

রবিবার আবু ধাবিতে শেষ ওভারে আফগানদের দরকার পড়ে ৮ রান। মাত্র ৪ রান খরচ করেন কাটার মাস্টার, যার দুটি আবার লেগবাই থেকে আসে।

এদিকে দীর্ঘদিনের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সম্প্রতি ক্রিকেটেে ফেরা বাংলাদেশ ক্রিকেটের প্রথম লিজেন্ড আশরাফুল এশিয়া কাপের গতকালকের খেলার শেষ ওভারের বোলিং নিয়ে ব্যাপক প্রশংসা করেছেন। একই সঙ্গে নিজে দলে না থাকায় হতাশাও ঝরেছে তার কণ্ঠে।

আশরাফুল আক্ষেপ করে বলেন আমি যদি খেলার সুযোগ পেতাম! তবে আগামী এশিয়া কাপে সুযোগ করে নিবেন বলে আশাবাদী ব্যাক্ত করেন তিনি।

জাতীয় দলে ফেরার অপেক্ষায় থাকা পেসার তাসকিন আহমেদ ও একই সুরে কথা বলেন। আবুধাবিতে এশিয়া কাপ ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৩ রানে হারিয়ে ফাইনালের স্বপ্ন জিইয়ে রেখেছে বাংলাদেশ। দিনের অন্য ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ভারত জয় পাওয়ায় এখন সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানকে হারাতে পারলেই ফাইনালে উঠতে পারবে মাশরাফি বিন মুর্তজার দল।

পাকিস্তান ম্যাচে বাংলাদেশের একাদশে একটি পরিবর্তন দেখা যেতে পারে সেটি হচ্ছে নাজমুল হাসান শান্ত বাদ পড়তে পারেন তার পরিবর্তে সুযোগ পেতে পারেন আচমকা স্কোয়াডে ডাক পাওয়া সৌম্য সরকার। ইমরুল কায়েস সুযোগ পেয়েই নিজেকে প্রমাণ করেছেন এবার সৌম্যকে দিয়েও চেষ্টা করতে পারে বাংলাদেশ, কেননা ওপেনিং-এ খেলা নাজমুল হাসান শান্ত তার উপর যে ভরসা রাখা হয়েছিল গত তিন ম্যাচে তার কোন প্রতিদান দিতে পারেনি, তিন ম্যাচেই ব্যার্থ।

ব্যর্থতার বোঝা না বাড়িয়ে এই মুহুর্তে পাকিস্তানের বিপক্ষে গুরুত্বপুর্ন মুহুর্তে তাকে একাদশে সুযোগ না দিয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচে অভিজ্ঞ সৌম্য সরকারকে সুযোগ দেওয়াই হবে সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত। এই একটি পরিবর্তন ছাড়া আর কোন পরিবর্তন না করাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

শেষের ‘ভূত’ তাড়িয়ে বাংলাদেশ জিতল ম্যাচ। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে এশিয়া কাপের মঞ্চে বাংলাদেশ হারাল এশিয়ার নতুন পরাশক্তি আফগানিস্তানকে। ৩ রানের জয়ে ১৪তম এশিয়া কাপের ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখল মাশরাফিরা।

বাংলাদেশের দেওয়া ২৫০ রান তাড়া করতে নেমে শেষ বল পর্যন্ত লড়ল আফগানিস্তান। শেষ ৬ বলে ৮ রান লাগত তাদের। মুস্তাফিজের করা প্রথম বলে ২ রান নেন রশিদ খান। পরের বলে রশিদ খান সাজঘরে। তৃতীয় বলে লেগ বাই থেকে আসে ১ রান। চতুর্থ বল ডট।

শেষ ২ বলে দরকার ৫ রান। ঠিক ওই মুহূর্তে নিদাহাস ট্রফির ফাইনাল ম্যাচের কথাই ভাবছিল ক্রিকেটপ্রেমিরা। সেদিন সৌম্যর শেষ বলে ৫ রান লাগত। ছক্কা মেরে শিরোপার স্বপ্ন ভেঙে দেন দিনেশ কার্তিক।

আজ মুস্তাফিজের ২ বলে আফগানিস্তানের লাগত ৫ রান । পঞ্চম বলে লেগ বাই-এ আরও ১ রান যোগ হয় আফগান স্কোরবোর্ডে। দুই দলের জয়-পরাজয়ের গড়ে দেবে ১ বলে ৪ রান। ব্যাটসম্যান সামিউল্লাহ সেনওয়ারি সব প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু মুস্তাফিজের শর্ট বলে ব্যাট ছোঁয়াতে পারেননি সামিউল্লাহ। উইকেটের পিছনে মুশফিক বল মুঠোবন্দী করেই ‍উল্লাসে ফেটে পড়েন। উল্লাসে মেতে উঠে পুরো দল। নাটকীয় ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ বুঝিয়ে দিয়েছে এশিয়া কাপে হট ফেবারিট বাংলাদেশও।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে