আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৫:৪৩

আশরাফুলের সামনে জাতীয় দলে ফেরার সুযোগ!

অনলাইন ডেস্ক
আশরাফুলের সামনে জাতীয় দলে ফেরার সুযোগ!

জাতীয় দলে ফিরতে নিজেকে প্রমাণের বড় সুযোগ দেওয়া হল মোহাম্মদ আশরাফুলকে। খুলনাতে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দলের হয়ে চার দিনের ম্যাচের স্কোয়াডে জায়গা পেয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটের সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান এই ব্যাটসম্যান। সুযোগটা ভালোমতোই কাজে লাগাতে চান ৩৪ বছর বয়সী আশরাফুল।

নিষেধাজ্ঞার কারণে ক্যারিয়ারের মোড় পাল্টে যাওয়া আশরাফুল আবার স্বপ্ন দেখছেন জাতীয় দলে ফেরার। সেই লক্ষ্যে নিজেকে বদলে ফেলেছেন তিনি। ডায়েট ঠিক রেখে ফিটনেসের উন্নতি করেছেন অনেকটাই। দিনকয়েক আগে ‘বিপ’ টেস্টে ১১.৪ পয়েন্ট তুলে পেছনে ফেলেছেন এখনকার অনেক তরুণকেও! ‘বিপ’ টেস্টে ১১ থেকে ১৩ পয়েন্টের মধ্যে থাকলে ডাক্তারি ভাষায় বলা হয় ফিটনেস ‘খুব ভালো’।

এখন মাঠে পারফর্ম করে নিজেকে প্রমাণের পালা। জাতীয় দলে ফেরার ‘প্রথম দরজা’ খুলেছে এইচপির প্রস্তুতি ম্যাচে থাকার মাধ্যমে। চার দিনের এই ম্যাচে ভালো করতে পারলে সম্ভাবনা আরও জোরদার হবে তার। সুবর্ণ সুযোগটা তাই কোনোভাবেই নষ্ট করতে চান না ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

আশরাফুল বলেছেন, ‘যে কোনও মূল্যে জাতীয় দলে ফিরতে চাই। তবে চাইলেই তো হবে না, এজন্য আগে আমাকে ফিটনেস প্রমাণ করতে হবে। পারফর্ম করলে জাতীয় দলে ফিরতে পারব। আশা করি এখানে ভালো করতে পারব। নির্বাচকদের ধন্যবাদ আমাকে সুযোগ দেওয়ার জন্য।’

সোমবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এইচপির স্কোয়াডে আশরাফুলের থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। আগামী ১৯ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে এইচপি দুই দলে ভাগ হয়ে একটি চার দিনের ম্যাচ খেলবে। জাতীয় দল থেকে বাদ পড়া ক্রিকেটার, ‘এ’ দলে থাকা ক্রিকেটার ও এইচপি টিমে থাকা সদস্যের নিয়ে এই দুটি দল গঠন করা হয়েছে।

একটি ‘সবুজ দল’, অন্যটি ‘লাল দল’। লাল দলের হয়ে খেলবেন আশরাফুল। তার সঙ্গে এই ম্যাচে খেলবেন- তাসকিন আহমেদ, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মার্শাল আইয়ুব, আল-আমিন, নুরুল হাসান সোহান।

আশরাফুলের সুযোগ পাওয়াটা বিস্ময়করই। নিষিদ্ধ হওয়া এই ক্রিকেটার ২০১৬ সালে ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরলেও বন্ধ ছিল জাতীয় দল ও বিপিএলের মতো ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টুর্নামেন্টের দরজা। তাই এইচপি দলে জায়গা পাওয়াটা আশরাফুলের জন্য দারুণ এক সুযোগ হতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া ম্যাচে আশরাফুল কেমন করে, সেই দিকে দৃষ্টি থাকবে নির্বাচকদের।

২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে আট বছরের জন্য নিষিদ্ধ হন আশরাফুল। আপিলের পর সেই সাজা কমে দাঁড়ায় পাঁচ বছর। দুই বছর আগে বিপিএল ছাড়া অন্যান্য ঘরোয়া আসরে খেলার ছাড়পত্র পান তিনি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে