আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৯:৪৭

সময় ফুরিয়ে আসছে মাশরাফির

অনলাইন ডেস্ক
সময় ফুরিয়ে আসছে মাশরাফির

বাংলাদেশ জাতীয় দলে প্রায় এক দশক ধরে নিয়মিত খেলোয়াড় মাশরাফি, সাকিব, তামিমরা। তাঁদের ছাড়া বাংলাদেশ দল চিন্তাও করা যায় না। কিন্তু দিন যত যাচ্ছে, সময় যত যাচ্ছে তাঁদের সময় ফুরিয়ে আসছে। বাংলাদেশের ক্রিকেট প্রেমীরা পারবে তো তাঁদের বিদায়ের সময় নিজেদের শান্ত রাখতে?

দুঃখজনক হলেও সত্যি সেই সময়টা এসে পড়েছে। আসন্ন এশিয়া কাপ শুরুর মধ্য দিয়ে মাশরাফির শেষের ঘণ্টা বাজতে শুরু করেছে। এশিয়া কাপের এই আসরটি হতে পারে মাশরাফির জন্য শেষ আসর।

গতবছর হুট করেই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে ক্রিকেট পাড়ায় শোরগোল বাঁধিয়ে ফেলেন মাশরাফি। ২০০৯ সালের পর সাদা পোশাকেও দেখা যায়নি আর তাঁকে। যদিও সেখান থেকে এখনো অবসরের ঘোষণা দেননি তিনি। গুঞ্জন রয়েছে ২০১৯ বিশ্বকাপের মধ্য দিয়ে ওয়ানডে ক্রিকেটকে বিদায় জানাবেন মাশরাফি।

গুঞ্জন সত্যি হলে এবারের এশিয়া কাপটাই হতে যাচ্ছে মাশরাফির জন্য শেষ এশিয়া কাপ। কেননা পরবর্তী এশিয়া কাপ অনুষ্ঠিত হবে ২০২০ সালে। ফরম্যাট ঠিক করা হয়েছে টি-টোয়েন্টি। মাশরাফি আগেই টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়ে ফেলেছেন। সেই হিসেবে ২০২০ সালে যে তিনি থাকছেন না সেটা নিশ্চিত।

ওয়ানডে ফরম্যাটের এশিয়া কাপ হবে ২০২২ সালে। সে সময় মাশরাফির বয়স ৩৯ এর ঘরে। সাধারণত ৩৫-৩৬ বছর বয়েসেই ক্রিকেটরা অবসরের ঘোষণা দিয়ে দেন। সব হিসাব মিলিয়ে এটাই প্রমাণ করে মাশরাফির জন্য এটাই শেষ এশিয়া কাপ।

মাশরাফির কারণে এবারের এশিয়া কাপ টাইগারদের কাছে বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছে। কেননা বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সেরা অধিনায়ক মাশরাফি। দেশ সেরা এই অধিনায়কের অনেক সিরিজ জেতা হলেও নামের পাশে নেই বড় কোনো টুর্নামেন্টের ট্রফি। বিশ্বকাপের আগে বাংলাদেশের বড় অ্যাসাইনমেন্ট বলতে এশিয়া কাপ। বিশ্বকাপের আগে মাশরাফির জন্য হতে যাচ্ছে শেষ কোনো বড় টুর্নামেন্ট।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে