আপডেট : ১৭ মার্চ, ২০১৮ ১৯:৫৮

‘তাই বলে বাঘ থেকে সাপ হয়ে নাচতে হবে?’

অনলাইন ডেস্ক
‘তাই বলে বাঘ থেকে সাপ হয়ে নাচতে হবে?’

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের একটি কমন দৃশ্য হয়ে গেলো ‘‌নাগিন ডান্স’‌। সিরিজ চলাকালীনই শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে বাংলাদেশ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম এই কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন। আর সেই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে কম ‘‌ট্রোলড’ হতে হয়নি।

আর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে ২ উইকেটে রুদ্ধশ্বাস জয়ের পর একই ঘটনা ঘটিয়েছে গোটা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলই। আর সেই নিয়েও ফের একবার সোশ্যাল মিডিয়াতে হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছেন তাঁরা। তবে এবার আর একা মুশফিকুর নন, গোটা বাংলাদেশই দলের খেলোয়াড় দিয়ে চলছে ‘‌ট্রোল’।

এবার মুশফিক-রিয়াদদের নাগিন ডান্সেরর সমালোচনা করলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আব্দুর নূর তুষার। তিনি তার ফেসবুক লিখেছেন-

“খেলায় জিতেছি। আনন্দের সীমা নাই। তাই বলে বাঘ থেকে সাপ হয়ে নাচতে হবে? সরি, আমি মাশরাফির টাইগার ধাক্কার পক্ষে। সাপের উত্তর দিতে সাপ হতের হবে কেন? সাপ তো আমাদের সমাজে সম্মানসূচক না।”

শ্রীলঙ্কা বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে জয়ের পর নাগিন ড্যান্স দিয়েছিলেন মুশফিকুর রহিম। মুহূর্তেই তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। গতকাল রাতে লঙ্কানের বিপক্ষে দ্বিতীয় জয় নিয়ে নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে এখন বাংলাদেশ। যেখানে কেবল দর্শক লঙ্কান ক্রিকেটাররা।

নাটকীয় এই ম্যাচে জয়ের পর এবার সম্মিলিতভাবে টুর্নামেন্টের বিখ্যাত সেই নাগিন ড্যান্স দিতে দেখা গেছে টিম বাংলাদেশকে। বাদ যাননি দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনও। তাকেও ক্রিকেটারদের সঙ্গে স্বাচ্ছন্দ্যে এই উদযাপনে দেখা গেছে। ইতোমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সুজনের সেই ছবি ভাইরাল।

যা নিয়ে অনেকে অনেক কিছু স্বাভাবিকভাবে ভাবছেন। তাদের একটি পক্ষ, যারা খেলা সরাসরি উপভোগ করেছিলেন। তারা বলছেন, ক্রিকেটার হওয়ার সুবাদে জয়ের আনন্দে সাকিব-তামিম-মাহমুদুল্লাহরা এভাবে নেচে উদযাপন করতেই পারেন।

তাদের মতে, শেষ ওভারে বাংলাদেশের একটা 'নো' বল পাওনা থাকলেও সাড়া দেননি আম্পায়ার। তখন ক্ষুব্ধ অবস্থায় দেখা যায় সুজনকে। এমনকি অধিনায়ক সাকিবের সঙ্গে গলা মিলেয়ে সুজনও মাহমুদুল্লাহকে বেশ কয়েকবার মাঠ ত্যাগ করতে বলেন। ফলে জয়ের পর উদযাপন করতেই পারেন তিনি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে