আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ২২:০১

দেশে ফিরে মুখ খুললেন হাথুরুসিংহে

অনলাইন ডেস্ক
দেশে ফিরে মুখ খুললেন হাথুরুসিংহে

বছরের শেষের দিকে ধাক্কা খাওয়া লঙ্কানরা বাংলাদেশে এসে ফের তুরুপে তাসের মতো ভেঙে পড়বে এটাই সবার কাম্য ছিল। কিন্তু না। হিসেব ও যে মাঝে মাঝে গড়মিল দেখা দেয় তা আপনা স্বীকার করে নিতে হবে। ত্রিদেশীয় সিরিজে দুই হার দিয়ে নতুন বছর শুরু করে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তৃতীয় ম্যাচ সোনার কাঠি-রুপার কাঠির ছোঁয়ায় বদলে যায় দলটি। আর এই ঘুরে দাঁড়ানোর পেছনের জাদুকর গুরু চন্দিকা হাথুরুসিংহে।

বাংলাদেশ ছেড়ে লঙ্কানদের কোচ হওয়ার পর হাথুরুর প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট পড়ে সাবেক ছাত্রদের বিপক্ষে। অর্থাৎ বাংলাদেশের ক্ষোভ-জেদ এমন যেন লঙ্কানদের নয় বরং হাথুরুর বিপক্ষেই খেলছে টাইগাররা। লঙ্কানদের বিপক্ষে জয় মানে হাথুরুর পরাজয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হিসেব-নিকেশ কষে যা ফলাফল মেলল তাতে বাংলাদেশের প্রাপ্তি শূন্য।

বছরের শুরুতে লঙ্কানদের প্রথম দুই পরাজয়কে কিভাবে দেখেছিলেন আপনি? নিশ্চয় তালি মেরে হেসে হেসে বলেছিলেন, ‘ব্যাটা হাথুরু, বাংলাদেশ ছেড়েছিলে, এবার বুঝ ঠেলা। কিন্তু এসবের বিপরীতে কুল ছিলেন মিস্টার কোচ। কারণ তিনি ভালো করেই জানেন, ‘যত গর্জে তত বর্ষে না।’ ঠিকই পরবর্তী ম্যাচগুলোয় ঝোপ বুঝে কোপ মেরে জয়গুলো নিজেদের করে নিতে সাহায্য করেছেন। এককথায় সফর চলাকালীন নিতান্তই চুপ ছিলেন তিনি।

নতুন ছাত্রের সঙ্গে হাথুরু।

তবে সোমববার (১৯ ফেব্রুয়ারি) সফর শেষে নিজ দেশে পা দেয়ার পর ক্রিকেট বিষয়ক জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকবাজের সঙ্গে বাংলাদেশ ট্যুর নিয়ে কথা বলেন হাথুরু।  এ সময় সফরের প্রথম দুই হার নিয়ে তিনি বলেন, আমি মনে করি না আমাদের পছন্দে ভুল ছিল। তাছাড়া আমি জানতাম যে,  আমরা দ্রুতই ছন্দে ফিরব। কিছু সমস্যা ছিল, যা তাড়াতাড়ি সমাধানে সক্ষম হয়েছি।’

বাংলাদেশ ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে নিজ দেশের ক্রিকেটে যোগ দেন হাথুরু। তাই অনেকের অভিযোগ,বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের গোপন তথ্য লঙ্কানদের সাহায্য করেছেন তিনি। তবে এই বিষয়টি তুড়ি মেরে উড়িয়ে দেন লঙ্কানদের নতুন গুরু। বলেন, ‘আমি মাঠে খেলতে নামিনি। কিভাবে আমি মাঠে প্লেয়ারদের সাহায্য করবো? তবে হ্যাঁ, আমি লক্ষ্য করেছি বাংলাদেশি মিডিয়াগুলো প্রচার করেছে আমি আমার নতুন ছাত্রদের তথ্য জানিয়ে হেল্প করেছি। ‘

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারের পর বছরের শুরুটা দারুণ কেটেছে শ্রীলঙ্কা টিমের।  টানা জয়ে লঙ্কানদের ড্রেসিংরুমের অবস্থা কি শীতল হয়েছে। এমন প্রশ্নের উত্তরে হাথুরু বলেন, ‘ড্রেসিংরুমের অবস্থা অনেক ভালো। কোচিং স্টাফরা সত্যিই চমৎকার। যোগাযোগ ব্যবস্থা অনেক ভালো। সবার চিন্তা নিজেদের আত্মবিশ্বাসটুকু ধরে রাখা, উন্নতি করা।’-ক্রিকবাজ

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে