আপডেট : ৭ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১২:৫৮

বিয়ে করেই ধর্মান্ধদের রোষের শিকার জাহির

অনলাইন ডেস্ক
বিয়ে করেই ধর্মান্ধদের রোষের শিকার জাহির

সেলেব্রিটিরা ট্রোলড হচ্ছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এ আর নতুন ঘটনা কী! ধর্ম নিয়ে পান থেকে চুন খসলেই তারকাদের ছেড়ে কথা বলা হয় না ভার্চুয়াল জগতে। ক্রীড়া সঞ্চালিকা মায়ান্তি ল্যাঙ্গার থেকে টেনিস তারকা সানিয়া মির্জার মতো নারীরা যেমন কট্টরপন্থী নেটিজেনদের ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের শিকার, তেমনই ক্রিকেটার মহম্মদ কাইফ, মহম্মদ সামি, ইরফান পাঠানদেরও নিয়মিত সমালোচনার কাঠগড়ার দাঁড়াতে হয়।

এই তালিকায় সাম্প্রতিক সংযোজন হলেন ভারতের সাবেক জাহির খান। যিনি নব্য বিবাহিত। জাহির অবশ্য সমালোচিত হওয়ার পাশাপাশি প্রশংসিতও। গত মাসেই ‘চক দে’-গার্ল সাগরিকা ঘাটগের সঙ্গে সাত পাঁকে বাধা পড়েছেন জাহির। এলাহি পার্টিও দেন বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয় স্বজনদের।

দীর্ঘদিনের বান্ধবী সাগরিকাকে বিয়ে করার পরেই মহারাষ্ট্রের কোলাপুরের মহালক্ষ্মী মন্দিরে পুজো দিতে গিয়েছিলেন তারকা ক্রিকেটার। পুজো দেওয়ার ছবি পোস্টও করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। তবে এরপরেই ধর্ম ব্যবসায়ীদের নিশানায় চলে আসেন ‘স্পিডস্টার’। তবে এতে যে ধর্মান্ধদের রোষের শিকার হবেন, তা ভাবতেই পারেননি তারকা পেসার।

ইসলাম ধর্মাবলম্বী হয়েও কী করে তিনি হিন্দুদের ধর্মস্থানে গেলেন, তা নিয়েই তার ভক্তদের একাংশ ক্ষোভে ফেটে পড়েন। কেউ কেউ লেখেন, ‘‘জাহির মুসলিম সেলিব্রিটি বলে তার হিন্দু মন্দিরে যাওয়া নিয়ে কেউ কিছু বলছেন না। এটাই যদি কোনও হিন্দু সেলিব্রিটি করতেন, তাহলে তাকে অনেক সমালোচনা শুনতে হত।’’

তবে মুদ্রার উলটো পিঠও রয়েছে। অনেকেই জাহিরের উদার মানসিকতার প্রশংসা করেছেন। স্বামী-স্ত্রী ভিন্ন ধর্মের হলেও তাদের কট্টরপন্থীদের মনোভাব নিয়ে যে কোনও সমস্যা নেই, তা দু’জনের আচরণেই স্পষ্ট।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রুমা

উপরে