আপডেট : ২১ মার্চ, ২০১৬ ১০:২৭

তাসকিন-সানিকে নিষিদ্ধ করায় ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়!

স্পোর্টস ডেস্ক
তাসকিন-সানিকে নিষিদ্ধ করায় ফেসবুকে সমালোচনার ঝড়!

এ সময়ের সবচেয়ে সম্ভবনাময়ী বাংলাদেশের ‍পেস বোলার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণার পর সামাজিক গনমাধ্যম সহ সবখানে চলছে সমালোচনার ঝর। তবে হাহাকারটা বেশি তাসকিন আহমেদকে নিয়ে।

ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসির এই নিষেধাজ্ঞার ফলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা শেষ হয়ে গেলো তরুণ এই পেসারের। বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে হঠাৎ করেই তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ পোষণ করায় বিষয়টিকে ষড়যন্ত্র ভাবছেন অনেকেই। আর এজন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ নিয়ে তুমুল সমালোচনার ঝড় তুলেছে ক্রিকেট প্রেমীরা।

এই বোলিং অ্যাকশন অবৈধ ঘোষণা করায় আইসিসিকে নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ করেছে অনেকেই। অনেকেই মনে করেন বাংলাদেশ ক্রিকেটকে ধ্বংস করার জন্যই আইসিসি এ কাজ করছে।

বিডিজবস এর প্রধান নির্বাহী ফাহিম মাশরুর তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘জানি খেলা আর রাজনীতি এক করা ঠিক নাI তারপরেও না বলে পারছি না- যে দেশের সামান্য একটি খেলায় ন্যায্যতা দেয়ার মানসিকতা না, সেই দেশ থেকে কোন আশায় আমরা নদীর পানির ন্যায্য ভাগ আশা করি?’

তাসকিনের অবৈধ বোলিং ঘোষণায় আইসিসির উদ্দেশে ব্র্যাক ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন- ‘গুটিবাজ আইসিসি।’

নাসির উদ্দিন নামে এক সাংবাদিক তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন- ‘তাসকিনের বোলিং যদি অবৈধ হয় তাহলে বুমরাহর (ভারতের পেস বোলার) বোলিং কেন আইসিসির সন্দেহের চোখে পড়ে না?’

সাইফুল আহমেদ মুরাদ নামের এক সাংবাদিক তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘এইভাবে একজন/দুইজন করে নিষিদ্ধ করে লাভ কি? বাংলাদেশের ক্রিকেট পাগল দর্শক যতদিন থাকবে এক একটা আগুন তৈরি হবে। তার থেকে ভাল হবে বাংলাদেশের ক্রিকেট খেলাকে চিরদিনের জন্য নিষিদ্ধ করা হোক।’

অপরদিকে, তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানীকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথে নিষিদ্ধের প্রতিবাদে গতকাল রবিবার শাহবাগ আর টিএসসি মোড়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট ফ্যানস ইউনিটির আহ্বানে আইসিসির প্রতি ক্ষোভ আর হৃদয় নিংড়ানো ধিক্কার জানালেন তরুণ ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষেরা। 'তাসকিন যদি নিষিদ্ধ হয়, অশ্বিন বুমরা কেন নয়’, ‘তিন মোড়লের হাত থেকে ক্রিকেটকে রক্ষা করো’ ‘টাইগাররা ভয় নাই, আমরা আছি লক্ষ ভাই’ এমনি নানা শ্লোগানে সরগরম হয়ে শাহবাগ মোড়।

এ বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচির সঙ্গে ক্রিকেটের 'তিন মোড়লের প্রতীকী কুশপুত্তলিকা দাহ করে প্রতিবাদ জানিয়ে ফ্যানস ইউনিটির আহ্বায়ক সঞ্জিব বলেন, “তাসকিনকে এমন এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ করা হলো যে ম্যাচে তিনি কোনো বাউন্স দেননি। এদিকে আইসিসির নিয়মে আছে যে, ম্যাচের জন্য অভিযোগ করা হবে কেবল ওই ম্যাচের বিষয়ে সতর্ক করে দেবে, নিষিদ্ধ নয়। অথচ আইসিসি কার ইশারায় নিয়ম ভঙ্গ করে তাসকিনকে নিষিদ্ধ করলো আমরা তা জানতে চাই।”

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ দলের পেস বোলার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানিকে বিশ্বকাপ চলাকালীন সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করে আইসিসি। আগামী ২১ মার্চ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচের দুই দিন আগে এবং ভারতের বিপক্ষে ২৩ মার্চের ম্যাচের চারদিন আগে আইসিসি এ সিদ্ধান্ত জানালো। এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের বিরুদ্ধে আইসিসির ‘তিন মোড়ল’র ষড়যন্ত্র বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অনেকেই ইতোমধ্যেই অভিহিত করেছেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে