আপডেট : ১৯ মার্চ, ২০১৬ ২০:৪৬

তাসকিন-সানির বোলিংয়ে ক্রুটি যেখানে!

স্পোর্টস ডেস্ক
তাসকিন-সানির বোলিংয়ে ক্রুটি যেখানে!

অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের কারণে সাময়িক নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ফাস্ট বোলার তাসকিন আহমেদ ও স্পিনার আরাফাত সানিকে।

৯ মার্চ ধর্মশালায় হল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচে আরাফাত সানি ও তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন আম্পায়ারা। ১২ মার্চ বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা দেন সানি। আর বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিকের সঙ্গে আলোচনা করে ১৫ মার্চ চেন্নাইয়ে আইসিসির অনুমোদিত ল্যাবে বোলিং অ্যাকশন পরীক্ষা দেন তাসকিন। সেই পরীক্ষায় ফেল করেন দুজনই।

আইসিসির নিয়ম হলো- বল করার সময় বোলারের কুনুই ১৫ ডিগ্রীর বেশি বাঁকতে পারবে না। কিন্তু সানি ও তাসকিন সেই সীমা অতিক্রম করে ফেলেন। মানে বল করার সময় তাদের কুনুই ১৫ ডিগ্রীর বেশি বেঁকে যায়। আইসিসির পক্ষ থেকে এটাই জানানো হয়েছে। তবে তা কত ডিগ্রী সেটা জানায়নি। এটা পরে বিসিবিকে জানিয়ে দেবে আইসিসি।

আইসিসি জানায়, বল করার সময় অরাফাত সানির বেশিরভাগ ডিলিভারিতেই কুনুই ১৫ ডিগ্রীর বেশি বেঁকে যায়। আর পেসার তাসকিন আহমেদের ক্ষেত্রে সমস্যা হয় কিছু কিছু ডেলিভারিতে।

এ দুজনের নিষেধাজ্ঞা সাময়িক। বোলিং অ্যাকশন সুধরে আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে ফেরার পথও খোলা রয়েছে। এর জন্য ধরাবাঁধা কোন সময় নেই। বোলারদের উপযুক্ত সময়মতই পরীক্ষা হতে পারে। সে নাগাদ বিসিবির অনুমতি নিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট খেলতে অসুবিধে নেই এ দুই বোলারের।

২০১৪ সালে বোলিং অ্যাকশনের জন্য সাময়িক নিষিদ্ধ হয়েছিলেন আল আমিন। পরে অ্যাকশন সুধরে ফিরে আসেন আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে