আপডেট : ১৭ মার্চ, ২০১৬ ১৯:০৫

এবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আগেই ক্যারিবীয়দের ‘চ্যাম্পিয়ন ড্যান্স’

স্পোর্টস ডেস্ক
এবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আগেই ক্যারিবীয়দের ‘চ্যাম্পিয়ন ড্যান্স’

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ডাগ আউটে থাকা সতীর্থদের সঙ্গে ক্রিস গেইলের সেঞ্চুরি উদযাপনের নতুন ধরন দেখেছেন নিশ্চয়ই। মাঠের বাইরে থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক ড্যারেন সামিসহ অন্য আরো কয়েকজন উল্লাসে নিজেদের দুটো হাত সামনে-পেছনে করছিলেন। যা দেখে ২২ গজে দাঁড়ানো গেইলও একই ভঙ্গিমায় সতীর্থদের অভিবাদনের জবাব দিয়েছেন। এমন দৃশ্য দেখার পর ধারাভাষ্যকাররাও লুকাননি নিজেদের কৌতূহল, ‘এটা নতুন গ্যাংনাম নাকি?’

এই কৌতূহল জাগা খুব স্বাভাবিকও। কারণ ভীষণ আমুদে স্বভাবের ক্যারিবীয়দের নাচে মেতে থাকার খ্যাতি আছে। ব্যতিক্রম নন ওই অঞ্চলের ক্রিকেটাররাও। ২০১২ সালে শ্রীলঙ্কার মাটিতে স্বাগতিকদের হারিয়ে বিশ্ব টি-টোয়েন্টির শিরোপা জেতা দলটির কাছ থেকে এর নমুনাও মিলেছিল। কোরিয়ান পপ তারকা সাইয়ের ‘গ্যাংনাম’ নাচ নেচে সেটির অন্যরকম আবেদনই তৈরি করে ফেলেছিলেন গেইলরা। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজও আর খুব বেশি বিশ্ব আসরের শিরোপা জেতেনি।

তবে সেই থেকে এটাও নিয়ম হয়ে গেছে যে ক্যারিবীয়দের কোনো বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়া মানেই ক্রিকেটামোদীদের নতুন এক নাচের সঙ্গেও পরিচিত হওয়া। চার বছর পর নতুন বছরের শুরুতেই যেমন হল। বাংলাদেশে অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের তরুণদের সূত্রে নতুন এক নাচেরও আবির্ভাব ক্রিকেট বিশ্বে। যে নাচের আবিষ্কারক আসলে দলটির অলরাউন্ডার শামার স্প্রিঙ্গার।

সেমিফাইনালে বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ উইনিং ইনিংস খেলেই দেওয়া নাচটি তাঁর ভাষায় ‘চেস্ট রোল’। কিন্তু ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ক্রিকেট বিশ্ব জুড়ে যেটির পরিচিতি কেবলই ‘স্প্রিঙ্গার ড্যান্স’ নামে। যে নাচ অনুকরণের চেষ্টায় ব্যস্ত দেখা গেছে এমনকি সামি, ডোয়াইন ব্রাভো এবং আন্দ্রে রাসেলদেরও। তবে সেটি নয়, বিশ্ব টি-টোয়েন্টিতে সামিরা নিয়ে এসেছেন নতুন এক ব্র্যান্ডের নাচই। যার এক ঝলক বুধবার রাতে গেইলের সেঞ্চুরির পরপরই দেখেছেন।

যেটি দেখেননি, সেটিও দেখে ফেলা এখন আর খুব কঠিন নয়। দুই হাত সামনে-পেছনে করা নাচটি সামিরা ড্রেসিংরুমে গিয়েও নেচেছেন। যে নাচের ভিডিও আবার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপলোডও করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। সামি সেই নাচের নামও দিয়েছেন একটি। যে নাম শুনে মনে হতেই পারে যে বিশ্ব টি-টোয়েন্টির শিরোপাও হয়ত নিজের হাতে দেখতে শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

কারণ এবার যে গেইল তাণ্ডবে প্রথম ম্যাচ জিতেই দেওয়া নাচটির নামকরণ সামি করে ফেলেছেন, ‘চ্যাম্পিয়ন ড্যান্স’। ২০১২-র বিশ্ব টি-টোয়েন্টি এবং চলতি বছরের শুরুতে যুব বিশ্বকাপের পর ক্যারিবীয়দের নাচ ‘সুপার হিট’ হয়েছিল। সে কারণেই হয়ত এবার তাদের নতুন নাচের জনপ্রিয় ওঠার জন্য টুর্নামেন্টের শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে না।

প্রথম ম্যাচের পরই তুমুল আলোচিত এবং এতে আমোদিত ক্রিকেট বিশ্বও। কিন্তু ক্যারিবীয় ক্রিকেটাররা চ্যাম্পিয়ন হয়ে ‘চ্যাম্পিয়ন ড্যান্স’কে পূর্ণতা দিতে পারবেন কিনা, সে প্রশ্নের উত্তর জানার জন্য আপাতত অপেক্ষা ছাড়া উপায় নেই!

উপরে