আপডেট : ১৩ মার্চ, ২০১৬ ১১:৪৭

সুপার টেনে ওঠার লড়াইয়ে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ওমান

স্পোর্টস ডেস্ক
সুপার টেনে ওঠার লড়াইয়ে টাইগারদের প্রতিপক্ষ ওমান

এ যেন শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের মঞ্চ, এ যেন দেশ মাতৃকার পতাকা বিশ্ব দরবারে তুলে ধরার লড়াই। বিশ্বকাপে বাছাইপর্ব উতরে সুপার টেনে যেতে এমনই এক শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও ওমান। দু’দলের মধ্যকার ‘বি’ গ্রুপের বাছাইপর্বের এই শেষ ম্যাচটি ধর্মশালায় মঞ্চস্থ হবে রবিবার (১৩ মার্চ) বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায়।

প্রতিপক্ষ হিসেবে ওমান বাংলাদেশের বিপক্ষে কতটা শক্তিশালী সেটা মাঠে দেখার সুযোগ এখনও টাইগারদের হয়নি। কেননা, দুই দল এই পর্যন্ত একটি ম্যাচেও মুখোমুখি লড়াইয়ে অবতীর্ণ হয়নি।

বিশ্বকাপে এবারের আসরের শুরুটা জয় দিয়েই করেছে টিম বাংলাদেশ। বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই নেদারল্যান্ডসকে ৮ রানে হারিয়ে তুলে নিয়েছে নিজেদের কাঙ্খিত জয়, যে জয় বিশ্বকাপের একেবারে শেষ পর্যন্ত প্রতিটি ম্যাচ জয়ের প্রেরণা যুগিয়ে যাবে।

হয়েছেও তাই। ৯ মার্চ প্রথম ম্যাচে তামিমের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে ডাচরা হেরে যাবার পর ১১ মার্চ দ্বিতীয় ম্যাচেও আবার হেসে উঠেছিল তামিমের ব্যাট। সেদিন অবশ্য প্রতিপক্ষ ছিল আয়ারল্যান্ড। বৃষ্টি বাধায় শেষ পর্যন্ত ম্যাচটি পরিত্যক্ত না হলে বাংলাদেশের জয় নিয়ে কারো সংশয় থাকার কথা নয়। তবে, বৃষ্টিতে ম্যাচটি পরিত্যক্ত হলে দুই দল পয়েন্ট ভাগাভাগি করে। আর এই পয়েন্ট ভাগাভাগির কারণে ম্যাচ শেষে ১ পয়েন্ট নিয়ে তুষ্ট থাকতে হয়েছে টাইগারদের। আর এই ১ পয়েন্টের ফলে দুই ম্যাচ মিলে মাশরাফিদের পয়েন্ট তিন। সমান সংখ্যক সমান পয়েন্ট ওমানেরও। কিন্তু নেট রানরেটে ওমান পিছিয়ে থাকায় পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে বাংলাদেশ।

ঠিক এমনই এক সমীকরণ নিয়ে রোববার (১৩ মার্চ) মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ওমানের বিপক্ষে বাংলাদেশ ড্র করলে কিংবা বৃষ্টিতে ম্যাচ পরিত্যক্ত হলেও সমস্যা নেই। টাইগাররা সোজা সুপার টেন বা দ্বিতীয় পর্বে উঠে যাবে।
 
তবে, ধর্মশালার আবহাওয়ার যে অবস্থা তাতে এই ম্যাচে বৃষ্টির সম্ভাবনাই বেশি।

গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচে বাংলাদেশ ফেভারিট, এমনকি জয়ের পরিসংখ্যানেও বাংলাদেশর চেয় পিছিয়ে ওমান। ১১ ম্যাচে তাদের জয় মাত্র ৪টিতে, যেখানে বাংলাদেশের জয় ১৯টিতে। তারপরেও ক্রিকেট বলে কথা! টি-টোয়েন্টিতে যেখানে ম্যাচের ভাগ্য ঘুরতে প্রয়োজন মাত্র ১ বা ২টি ওভার।

তাইতো শনিবার (১২ মার্চ) ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে  টাইগারদের বোলিং কোচ হিথ স্ট্রিক এই ম্যাচের প্রতিপক্ষ ওমানকে সমীহ করে জানান ‘ভাগ্যের জোরে নয় বরং নিজেদের যোগ্যতার শতভাগ প্রমাণ দিয়েই ওমান বিশ্বকাপে এসেছে। আপনারা দেখেছেন যে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে তারা জয় পেয়েছে। তাই ছোট দল হিসেবে অবজ্ঞা করা পেছনে থাক, আমরা তাদের অন্য দলগুলোর মতোই শক্তিশালী মনে করছি।’

‘প্রতিপক্ষকে দুর্বল ভাবতে নেই’ হিথ সেটা ভাল করে জানেন বলেই হয়তো এমনটি বলেছেন। টাইগাররা এই ম্যাচে জয়ের লক্ষ্যেই নামবে। কারণ বিশ্বমঞ্চে শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে ম্যাচটিতে তাদের জয়ের বিকল্প নেই।

জয়ের বিকল্প নেই ওমানেরও। নিজেদের প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ২ উইকেটের জয়টি তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে আকাশ পর্যন্ত। তাইতো ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এসে দলটির সহ-অধিনায়ক আমির কলিম উঁচু গলায়ই বললেন, ‘বাংলাদেশকে হারিয়ে আমরা বিশ্বকাপের মূল পর্বে খেলবো।’

আমির আরও জানান, গত তিন মাস আমরা খুব ভালো ক্রিকেট খেলেছি। শুধু তাই না, বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে আমরা আয়ারল্যান্ডকেও হারিয়েছি। মূলত এই জয়গুলোই আমাদের বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো খেলার আত্মবিশ্বাস যুগিয়ে যাচ্ছে।’ শুধু আয়ারল্যান্ড কেন? সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচেও দলটি হংকংকে হারিয়েছে। তাই হয়তো তারা এমন আত্মবিশ্বাস পাচ্ছে।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ:
তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, মাশরাফি বিন মর্তুজা, আবু হায়দার রনি, তাসকিন আহমেদ ও আল-আমিন হোসেন।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম

উপরে