আপডেট : ১১ মার্চ, ২০১৬ ১৬:০৭

তাসকিনের ২৪টি ডেলিভারির একটাতেও হাত বাঁকেনি, তবু সন্দেহ!

স্পোর্টস ডেস্ক
তাসকিনের ২৪টি ডেলিভারির একটাতেও হাত বাঁকেনি, তবু সন্দেহ!

৯ মার্চ নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে ৪ ওভার বল করে ২১ রান দেন বাংলাদেশের স্পিডস্টার তাসকিন আহমেদ। ওই ম্যাচ শেষেই মাঠের দুই আম্পায়ার এস রবি ও রড টাকার সন্দেহজনক বোলিংয়ের অভিযোগের তীরে বিদ্ধ করেন এই তরুণ পেসারকে।

গত এক বছর থেকে একাধিকবার এ দুই আম্পায়ারই কোন না কোন সময় তাসকিনের বলে আম্পায়ারিং করেছেন। আগে কখনো তাদের চোখে কোন অসঙ্গতি ধরা পড়েনি। তবে কি ডাচদের বিপক্ষে নতুন কোন ডেলিভারি করলেন তাসকিন যা সন্দেহ জাগায়?

সেদিন করা তাসকিনের ২৪টি ডেলিভারির ভিডিও বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে কোন ডেলিভারিতেই নিয়মের ভঙ্গ করে হাত বাঁকান নি তাসকিন। তবে কি কারণে সন্দেহ জানালেন দুই আম্পায়ার?

বিষয়টি বোধগম্য নয় বাংলাদেশ দলের কাছে। কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে অবশ্য আইসিসির এমন অ্যাকশন নিয়েই সন্দেহ পোষণ করেছেন।

এদিকে,দুই আম্পায়ারের রিপোর্ট ও আইসিসির বিজ্ঞপ্তির পর এ নিয়ে সমালোচনা চলছে বিভিন্ন মহলে। এ প্রসঙ্গে অনেকেই বলছেন, তাসকিনের থেকে বরং আরও অনেক বেশি হাত বাঁকান ভারতের তরুণ পেসার জাসপ্রিন্ত বোমরা ও রবীচন্দ্র অশ্বিন। তারা কখনো প্রশ্নবিদ্ধ না হলে নিয়ম মেনে বোলিং করেও কেন হেনস্থার শিকার তাসকিন?

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশের সমর্থকরা প্রশ্ন তুলেছেন আইসিসি ও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সম্পর্ক নিয়ে।

প্রসঙ্গত, নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশের পেসার তাসকিন আহমেদ এবং স্পিনার আরাফাত সানির বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন দুই অনফিল্ড আম্পায়ার এস রবি এবং রড টাকার।

দুই আম্পায়ার সন্দেহের অভিযোগ করার পর আইসিসির বেঁধে দেয়া ৭ দিনের সময়সীমার মধ্যে আগামী ১৪ মার্চ চেন্নাই ল্যাবে পরীক্ষা হবে দুই টাইগার বোলারের।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে