আপডেট : ৯ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২৯

ডাচদের তৃতীয় উইকেটের পতন, চাপে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক
ডাচদের তৃতীয় উইকেটের পতন, চাপে বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের ছুঁড়ে দেওয়া ১৫৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করছে নেদারল্যান্ডস। ১৪ ওভারে ডাচদের সংগ্রহ ৩ উইকেটে ৯৩ রান।

দলীয় ২১ রানের মাথায় ব্যারেসিকে (৯) ফেরান আল আমিন। ব্যারেসি সাব্বিরের হাতে ক্যাচ তুলে সাজঘরে ফেরন। ৮.১ ওভারে মাইবার্গকে (২৯) বোল্ড করেন মাহমুদউল্লাহ । এরপরে বেন কুপার ও পিটার ব্যারন ৩.১ ওভারে ২৪ রানের জুটি গড়েন। ১১.২ ওভারে আঘাত হানেন সাকিব আল হাসান। বেন কুপারকে (২০) বোল্ড করেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

এর আগে নেদারল্যান্ডসকে ১৫৪ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দেয় টাইগাররা। এদিন প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অন্যান্য ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিলে একপ্রান্ত আগলে রাখেন তামিম ইকবাল। শেষ পর্যন্ত তার ৫৮ বলে অপরাজিত ৮৩ রানের ঝড়ো ইনিংসে ১৫৩ রানের পুঁজি সংগ্রহ করে বাংলাদেশ।

বুধবার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান ডাচ অধিনায়ক পিটার বোরেন। ওপেনিংয়ে নেমে শুরুতে দেখেশুনে খেলন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার। ৩ ওভারে ১৮ রান তুলেন তারা। চতুর্থ ওভারের প্রথম বলে আউট হন সৌম্য। ভ্যান ম্যাকরেনের বলে উইকেট কিপার ওয়েসলি ব্যারাসির হাতে কাচ তুলে সাজঘরে ফিরেন সৌম্য। আউট হওয়ার আগে ১৩ বলে ১৫ রান করেন তিনি।

এরপর ক্রিজে আসেন সাব্বির। তাকে নিয়ে ৫.২ ওভারে ৪২ রানের পার্টনারশিপ গড়েন তামিম। তবে ৮.৩ ওভারে দলীয় ৬০ রানের মাথায় ভ্যান ডার মারে'র বলে আউট হন সাব্বির (১৫)। কিছুক্ষণ পর ফিরে যান সাকিব আল হাসানও (৫)। ১০.৫ ওভারে পিটার বোরেনের বলে ক্যাচ তুলে বিদায় নেন তিনি। 

নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলেও একপ্রান্ত আগলে রেখে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যান তামিম। ১৫তম ওভারে জোড়া আঘাত হানেন ভ্যান ডার গুটেন। ১৪.২ ও ১৪.৫ ওভারে তার বলে ফিরে যান মাহমুদউল্লাহ (১০) ও মুশফিক (০)। ১৭.৪ ওভারে ফিরে যান নাসির হোসেনও।

তবে একপ্রান্তে আসা-যাওয়ার মিছিল থাকলেও দমে যাননি তামিম। একপ্রান্ত থেকে ব্যাট চালিয়ে খেলেন তিনি। শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে ৫৮ বলে ৮৩ রানের ইনিংস খেলেন তামিম। ঝড়ো এই ইনিংসে ৬টি চার ও ৩টি ছয়ের মার রয়েছে। ডাচদের হয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছেন ভ্যান ডার গুটেন, দুটি উইকেট নিয়েছেন ভ্যান ম্যাকেরেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে