আপডেট : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৮:০৫

পাঁচবারের আক্ষেপ মুস্তাফিজের!

স্পোর্টস ডেস্ক
পাঁচবারের আক্ষেপ মুস্তাফিজের!

মাত্র ২০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন। এই কয় ম্যাচেই পাঁচ-পাঁচবার হ্যাটট্রিকের দুয়ার থেকে ফিরেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। তিন বলে তিন উইকেট নেয়ার সামনে দাঁড়িয়েও হ্যাটট্রিকটা পাওয়া হচ্ছে না বাংলাদেশের তরুণ এই পেসারের। হ্যাটট্রিকের জন্য আর কত অপেক্ষায় থাকবেন মুস্তাফিজ!

মুস্তাফিজ সর্বশেষ হ্যাটট্রিক-বঞ্চিত হয়েছেন শুক্রবার এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বিপক্ষে। আগের ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে ৪ ওভারে ৪০ রান দিয়েও তিনি ছিলেন উইকেটশূন্য। তাই আমিরাতের বিপক্ষে নিজেকে ফিরে পাওয়ার চ্যালেঞ্জ ছিল মুস্তাফিজের।

আমিরাতের বিপক্ষে নিজের প্রথম ওভারেই উইকেট পেতে পারতেন মুস্তাফিজ। নিজের বলে দৌড়ে গিয়ে মুস্তাফিজ নিজেই রোহান মুস্তাফার দুর্দান্ত এক ক্যাচ নিলেও হাত মাটিতে ছুঁয়েছে বলে সেটাতে আউট দেননি থার্ড আম্পায়ার শোজাব রাজা।

প্রথম ওভারে উইকেট না পেলেও দ্বিতীয় ওভারেই জাদু দেখান মুস্তাফিজ। দারুণ দুটি অফ কাটারে টানা দুই বলে নেন দুই উইকেট। প্রথম বলে মোহাম্মদ শাহজাদকে ফিরতি ক্যাচ বানানোর পর দ্বিতীয় বলে স্বপ্নিল পাতিলকে মাশরাফির তালুবন্দি করান। এবার কি হবে মুস্তাফিজের হ্যাটট্রিক? না, এবারও হলো না। মুস্তাফিজের আরেকটি অফ কাটার অল্পের জন্য আমিরাত অধিনায়ক আমজাদ জাভেদের ব্যাটের কানায় লাগেনি।

মুস্তাফিজ এর আগে সর্বশেষ হ্যাটট্রিক না পাওয়ার আক্ষেপে পুড়েছিলেন গত মাসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে। খুলনায় সে ম্যাচে জিম্বাবুয়ের ইনিংসের ১৮তম ওভারে প্রথম দুই বলে এলটন চিগুম্বুরা ও লুক জঙ্গুয়েকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন মুস্তাফিজ, দুটিই বোল্ড। কিন্তু পরের বলটি ঠেকিয়ে দেন শন উইলিয়ামস।

গত বছরের জুলাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে নিজের অভিষেক টেস্টেও হ্যাটট্রিক-বঞ্চিত হন মুস্তাফিজ। চট্টগ্রামে সে ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংসে এক ওভারে তিন উইকেট পেলেও হ্যাটট্রিকটা হয়নি তার। পরপর দুই বলে হাশিম আমলা আর জেপি ডুমিনিকে ফিরিয়ে দাঁড়িয়ে গিয়েছিলেন হ্যাটট্রিকের সামনে। কিন্তু পরের বল কুইন্টন ডি কক ঠেকিয়ে দেন। অবশ্য পরের বলেই ডি কককে এলবিডব্লিউ করে সাজঘরের পথ দেখিয়েছিলেন মুস্তাফিজ।

তিন বলে তিন উইকেট নেয়ার সামনে দাঁড়িয়েও হ্যাটট্রিকটা না পাওয়ার আক্ষেপের গল্পটা শুরু হয়েছিল মুস্তাফিজের ওয়ানডে অভিষেক ম্যাচেই। গত বছর তিন ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে রেকর্ড গড়া ওই সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ভারতের ইনিংসের ৩৭তম ওভারের চতুর্থ ও পঞ্চম বলে যথাক্রমে সুরেশ রায়না ও রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু পরের বলটি ভুবনেশ্বর কুমার ঠেকিয়ে দিয়ে এক রান নিয়েছিলেন।

দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও ভারতের ইনিংসের ৪০তম ওভারে পরপর দুই বলে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি ও অক্ষর প্যাটেলকে ফিরিয়ে দিয়ে হ্যাটট্রিকের সামনে দাঁড়িয়েছিলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু এবার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন অশ্বিন। এবারও হ্যাটট্রিক-বঞ্চিত।

ছোট্ট এ ক্যারিয়ারেই পাঁচ-পাঁচবার হ্যাটট্রিকের দুয়ার থেকে ফিরলেন মুস্তাফিজ। অধরা এই হ্যাটট্রিকটা তার কাছে কবে যে ধরে দেবে, কে জানে!

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে