আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২১:২৭

টিম ইন্ডিয়াকে উওপ্ত করতে পাকিস্তানের নতুন কৌশল

স্পোর্টস ডেস্ক
টিম ইন্ডিয়াকে উওপ্ত করতে পাকিস্তানের নতুন কৌশল

অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন এসে যাওয়াতেই কি হরভজন সিংহকে বাতিলের তালিকায় ফেলে দিলেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি? এ নিয়ে বিতর্ক থাকতেই পারে। নানান জনের নানান মত থাকতেই পারে। পাকিস্তানের প্রাক্তন অফ-স্পিনার সাকলাইন মুস্তাক বললেন, ভাজ্জিকে ঠিকভাবে ব্যবহারই করেনি ভারতীয় দল।

অশ্বিনকে ‘ওয়ার্ল্ড ক্লাস বোলার’ বলার পরেও সাকলিন বলছেন, ‘‘শেষ সাতটি টি ২০ ম্যাচে জায়গা পায়নি হরভজন। আর এতে বোলারের আত্মবিশ্বাস তলানিতে ঠেকতে বাধ্য। হরভজনের সঙ্গে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট ভাল ব্যবহার মোটেও করেনি। হরভজন বিশ্বসেরা বোলার। অশ্বিনের উত্থান মানে এই নয় যে হরভজনকে বাতিলের তালিকায় ফেলে দিতে হবে। অথবা ওকে চাপে ফেলে দিতে হবে।’’

সৌরভ গাঙ্গুলির তুরুপের তাস ছিলেন ভাজ্জি। ইডেন গার্ডেন্সে হরভজনই অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং মেরুদণ্ড ভেঙে দিয়েছিলেন। ২০০৩ বিশ্বকাপেও ভাজ্জি নিজের জাত চিনিয়েছিলেন। ভারতীয় ক্রিকেটে সৌরভ জমানা শেষ হওয়ার পরে হরভজন-যুগও ধীরে ধীরে শেষ হয়ে যায়। ধোনির সময়ে তো ভাল করে আর সুযোগই পাননি হরভজন। দল থেকে ছিটকে যান। আবার তাঁকে ফিরিয়ে আনা হয়। সাকলাইন বলছেন, ‘‘দল থেকে ছিটকে যাওয়ার পরে ও তিনবার ফিরে এসেছে দলে। এর অর্থই হল— দলে হরভজনকে দরকার। ওকে দলে নেওয়া হচ্ছে আবার যখনই প্রয়োজন ফুরিয়ে যাচ্ছে তখনই ওকে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। এর অর্থই হল হরভজনের উপরে চাপ বাড়ানো হচ্ছে। ওর অতীত সাফল্যকে অগ্রাহ্য করা হচ্ছে।’’

সাকলাইনের এ সমালোচনা কি ধোনির কানে পৌঁছেছে?  ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট কি আদৌ সাকলাইনের বক্তব্যকে গুরুত্ব দেবে? (সূত্র-এবেলা)
 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম

 

 

উপরে