আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১২:৩৪

প্রতিপক্ষের কাছে এখনো রহস্য মুস্তাফিজ

স্পোর্টস ডেস্ক
প্রতিপক্ষের কাছে এখনো রহস্য মুস্তাফিজ

এসেই বল হাতে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন। তার বল বোঝার আগেই সাজঘরের পথ ধরতে হয়েছে বাঘা বাঘা সব ব্যাটসম্যানকে। যে রহস্যের জানালা খোলেনি এখনো। বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণের প্রধান অস্ত্র মুস্তাফিজুর রহমানের কাটার শো চলছেই। প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানদের কাছে এখনো অচেনা এক হুমকির নাম মুস্তাফিজ!

এটা মাঠের মুস্তাফিজ।

আর মাঠের বাইরে?

লাজুক ও স্বল্পভাষী। স্বল্পভাষী বলাটাও হয়তো ঠিক হবে না। সংবাদ সম্মেলনে এলে যে কথা বলাটাই চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায় তার জন্য। সংবাদ সম্মেলন শুরুর আগে তাকে একটু বেশি কথা বলার অনুরোধ করে রাখলেও ফলটা আগের মতোই হয়।
দুই-এক কথাতেই সেরে ফেলেন উত্তর। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তার দেয়া উত্তর সাংবাদিকদের প্রশ্নের চেয়েও ছোট হয়। মাঝে মাঝে উত্তর নেই বলেও চালিয়ে দেন। শনিবার আরো একবার সেভাবে দেখা গেলো মুস্তাফিজকে।

আট মিনিটের সংবাদ সম্মেলনে মুস্তাফিজ খরচ করেছেন মাত্র ১৮০ থেকে ২০০ শব্দ। কয়েকটা প্রশ্নের উত্তরে বলে দিয়েছেন, ‘উত্তর নেই আমার কাছে।’

ঘরের মাঠের বিশ্বকাপ। দলটাকে কোথায় দেখতে চান? মুস্তাফিজ বলে দিলেন, ‘ভাই এটার উত্তর নেই আমার কাছে।’

পরের প্রশ্নে বলা হলো, ভারতের বিপক্ষে আপনার উত্থান। এবার তারা পরিকল্পনা করে আসবে। লক্ষ্য কী? এবারও মুস্তাফিজ বললেন, ‘উত্তর নাই।’

এক কথাতেই উত্তর সেরে নেন মুস্তাফিজ। বেশি বলতে বলা হলে মুস্তাফিজ যে কিছুটা যে বিরক্তও হন সেটা বুঝতে সাংবাদিকদের সমস্যা হয় না!

তবে শনিবারের সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের একেবারে হতাশ করেননি বাংলাদেশ পেসার। কথা বলেছেন এশিয়া কাপ, বিশ্বকাপ নিয়ে। প্রথমবারের মতো এশিয়া কাপ খেলতে যাচ্ছেন মুস্তাফিজ। প্রথম অভিজ্ঞতাটা ফ্রেমবন্দী করে রাখতে চান বাঁহাতি এই তরুণ পেসার, ‘এশিয়া কাপ খেলিনি। এটাই প্রথম। দলে রাখার জন্য কোচ-নির্বাচকদের ধন্যবাদ। আমাকে যেহেতু রেখেছে, চেষ্টা করবো আমার সেরাটা দেয়ার।’

২০১২ এশিয়া কাপে ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ। তখন মুস্তাফিজ জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছেন মাত্র। তবে হার ঠিকই জ্বালা দিয়েছিল তাকে। এবার দলের জন্য কিছু করার সুযোগ তার সামনে, ‘ওই সময় আমি ঢাকাতে পেস ফাউন্ডেশন ক্যাম্পে ছিলাম। আমি বাংলাদেশ দলের নেটেও বোলিং করেছি। মামার বাসায় ছিলাম। দেশের খেলা, হারলে তো খারাপ লাগবেই। এখন হারলে যেমন লাগে সেরকমই লেগেছে।’

ইনজুরির কারণে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শেষ দুই টি-টোয়েন্টি খেলা হয়নি মুস্তাফিজের। তবে এশিয়া কাপে ফিট হয়ে মাঠে নামছেন তিনি। সব ধরণের বলই করতে পারবেন বলে আশা করছেন ৯ ওয়ানডেতে ২৬ উইকেট পাওয়া মুস্তাফিজ, ‘এখন অনেক ভালো। অনুশীলন চলছে। আরো চারদিন আছে। আশা করি সব বল করতে পারবো।’

পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু শুধু এই ফরম্যাটেই এখনো ম্যাচ সেরার পুরষ্কার জেতা হয়নি তার। এটা কি কঠিন?

মুস্তাফিজের উত্তর, ‘খেলতে পারলে সব সহজ।’ তবে যদি প্রশ্ন করা হয় কথা বলার চেয়েও সহজ? মুস্তাফিজ হয়তো হেসে বলবেন, ‘না, এটাই কঠিন!’

সূত্র : প্রিয়.কম

উপরে