আপডেট : ৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৪:১১

ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে কী পাকিস্তান ?

স্পোর্টস ডেস্ক
ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে কী পাকিস্তান ?

 

ভারতের মাটিতে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে । পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের যে হালচাল, তাতে ভারতে হয়তো দল পাঠাবে না দেশটি। এই শঙ্কা ডালপালা মেলেছে মূলত পাক ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহরিয়র খানের বক্তব্যের জেরে। শাহরিয়র বলেছেন, ভারতে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা খেলতে যাবেন কি না, তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে পাক সরকার। গত সপ্তাহে এই নিয়ে আইসিসি-তে নিজেদের বক্তব্যও জানিয়ে রেখেছে পাক বোর্ড। শাহরিয়র বলেন, ‘আমরা আইসিসিকে বলে রেখেছি, ভারতে যাওয়ার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে পাক সরকার। পাকিস্তান ক্রিকেটারদের কেন্দ্র করে কোনও নিরাপত্তার আশঙ্কা রয়েছে কি না সেটাই এখন দেখা হচ্ছে।’ একই সঙ্গে তিনি মনে করিয়ে দেন, চলতি অনূর্ধ্ব ১৯ বিশ্বকাপে নিরাপত্তার কারণেই সরে দাঁড়িয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

মুম্বাইয়ে বিসিসিআই অফিসে শিবসেনার হামলা, পাকিস্তানি গায়ক গুলাম আলির কনসার্ট না হতে দেওয়া, প্রাক্তন পাক বিদেশ সচিব খুরশিদ কাসুরির বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে বাধা দেওয়ার মতো ঘটনার কথা উল্লেখ করেন শাহরিয়র। জানান, পাক ক্রিকেটাররা ভারতে কতটা নিরাপদ, সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বলেন, ‘এ সব ঘটনার পর ভারতে টিমের যাওয়া উচিত কি না সেটা সরকার ঠিক করবে। আমরা এ সব আইসিসি-র বৈঠকে বলেওছি। আমি নিজে নিরপেক্ষ কেন্দ্রের কথা বলিনি। বৈঠকেই কেউ বলেছিল। আমরা তাতে সম্মতি জানিয়েছি।’

এর মধ্যেই শাহরিয়রকে প্রশ্ন করা হয়, গুয়াহাটিতে চলা সাউথ এশিয়ান গেমসে পাঁচশোরও বেশি সদস্যের পাকিস্তান দল যখন খেলছে তখন ক্রিকেটাররা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কেন যেতে পারবেন না? পাক বোর্ড প্রধান বলেন, ‘কবাডি বা ব্যাডমিন্টন প্লেয়ারদের সঙ্গে ক্রিকেটারদের পার্থক্য রয়েছে। তাই সাঁতার বা অন্য খেলোয়াড়দের থেকেও ক্রিকেটারদের উপর হামলা হওয়ার আশঙ্কা বেশি। তাই বলছি সরকার অনুমতি না দিলে আইসিসি হয়তো আমাদের শ্রীলঙ্কা বা আমিরাতের মতো নিরপেক্ষ কেন্দ্রতে খেলার প্রস্তাব দেবে।’

পাকিস্তানের এমন কথা বলার আরো কারণ আছে। ডিসেম্বরে তাদের দেশে সিরিজ খেলার কথা ছিল ভারতের। কিন্তু পাকিস্তানি জঙ্গিরা ভারতে ঢুকে দুই দফায় হামলা চালানোয় সিরিজ বাতিল হয়ে যায়। এমনকি নিরপেক্ষ কোনো ভেন্যুতেও খেলতে রাজি হয়নি বিসিসিআই। সিরিজ আয়োজন করতে ভারতকে অনেক অনুরোধ করে পাকিস্তান। ইমরান খান পর্যন্ত ভারতে এসে মোদির সঙ্গে দেখা করে এ বিষয়ে কথাও বলেন। কিন্তু কিছুতেই রাজি হয়নি ধোনি-যুবরাজদের বোর্ড।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম
 

 

উপরে