আপডেট : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৬:২৩

ইতিহাস গড়ে স্বপ্নের সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক
ইতিহাস গড়ে স্বপ্নের সেমিফাইনালে বাংলাদেশ

মুশফিক, সাকিব, তামিম, নাফিস, আশরাফুলদের মত তারকা ক্রিকেটাররা যা পারেননি তাই করে দেখালেন মেহেদী হাসান মিরাজ-জাকির হোসেন- নাজমুল হোসেন শান্তরা।

কোয়ার্টার ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে যখন নেপালকে পাওয়া নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল, তখনই সবাই ধরে নিয়েছে, সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রেখেছে বাংলাদেশ। তবুও পঁচা শামুকে যেন পা কেটে না যায়, সে কারণে বেশ সতর্ক মেহেদী হাসান মিরাজরা।

কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে নেপাল ভালোই লড়াই জমিয়ে তুলেছিল। কিন্তু অধিনা্য়ক মেহেদী হাসান মিরাজ এবং জাকির হাসানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে প্রথমবারের মতো কোন বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠে গেলো বাংলাদেশ। নেপালকে ৬ উইকেটে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠে গেলো বাংলাদেশের যুবারা।

এবারের আসরে চমক দেখানো নেপাল এদিন লড়ে গেছে সমানে-সমান। জুনিয়র টাইগারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ব্যাট হাতে ২১১ রান সংগ্রহ করে নেপালি যুবারা। নেপাল ইনিংসে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বয়স বিতর্কে জড়ানো অধিনায়ক রাজু রিজাল। তার ৮০ বলে ৭২ রানের ইনিংসে ভর করেই ২১১ রান সংগ্রহ করে নেপাল।

বল হাতেও বাংলাদেশকে ছেড়ে কথা বলেনি নেপালি যুবারা। তাদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ২৭.৪ ওভারে দলীয় ১১৪ রানে বিদায় নেন পিনাক ঘোষ, সাইফ হাসান, জয়রাজ শেখ ও নাজমুল হাসান শান্ত। এ সময় বেশ চাপে পড়ে যায় জুনিয়র টাইগাররা। তবে সেখান থেকে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ ও উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান জাকির হাসান।

অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ (৫৫) ও জাকির (৭৫) রানের অসাধারণ ইনিংস খেলে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন। মিরাজ ৬৫ বল খেলে তিন বাউন্ডারিতে এ রান করেন। জাকির হোসেন ৭৭ বলে পাঁচ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় তার ৭৫ রানের ঝলমলে ইনিংস খেলেন।

শেষ পর্যন্ত ১০ বল বাকি থাকতেই ছয় উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। এ জয়ে প্রথমবারের মতো যুব বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠেছে বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে যুব বিশ্বকাপে পূর্বসূরিদের সাফল্যকে ছাড়িয়ে গেলেন মিরাজরা ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে