আপডেট : ৭ জুলাই, ২০১৯ ১০:০৪

এবার প্রকাশ্যে বাজারে যুবককে কোপাল দুই ভাই

অনলাইন ডেস্ক
এবার প্রকাশ্যে বাজারে যুবককে কোপাল দুই ভাই

বরগুনার রিফাত হত্যার রেশ কাটত এ না কাটতেই এবার একইভাবে মৌলভীবাজারের বড়লেখায় সুফিয়ান আহমদ (২২) নামে এক যুবককে কুপিয়েছে দুই সহোদর। প্রকাশ্যে লোকজনের সামনে সুফিয়ানকে কোপালেও তাকে রক্ষায় কেউই এগিয়ে আসেননি।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় শনিবার রাতে সুফিয়ান আহমদকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নের কাননগো বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সুফিয়ান আহমদ ওই ইউনিয়নের বড়ময়দান গ্রামের ফৈয়াজ আলীর ছেলে।

অভিযুক্ত দুই সহোদর হচ্ছে- বড়ময়দান গ্রামের সখাত আলীর ছেলে সেলিম উদ্দিন ও সুনু মিয়া। এই ঘটনায় সুফিয়ানের বাবা ফৈয়াজ আলী বড়লেখা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৩ মাস আগে সেলিম ও সুনু মিয়াদের সাথে চৌ-ঢালু বিলে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিরোধ সৃষ্টি হয় সুফিয়ানের। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মীমাংসা হয়েছিল। তবে শনিবার সকালে সুফিয়ান কাননগো বাজারে মাছ বিক্রি করতে গেলে আগের মাছ ধরা নিয়ে বিরোধের বিষয়টি সামনে আনেন সেলিম ও সুনু মিয়া। এক পর্যায়ে দুই সহোদর ধারালো অস্ত্র দিয়ে সুফিয়ানকে কুপাতে থাকেন। তারা সুফিয়ানের মাথা ও শরীরের বিভিন্ন জায়গায় কুপিয়ে আহত করে।

প্রকাশ্যে যুবককে কোপালেও এসময় অনেক লোকজন বাজারে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু কেউ সুফিয়ানের সাহায্যে এগিয়ে আসেননি। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় সুফিয়ানকে বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বড়লেখা থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) মো. রশিদ উদ্দন বলেন, ‘বিলে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে দুই-তিন মাস আগে ঝগড়া হয়েছিল। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে শেষ হয়। এরই জের ধরে ঘটনাটি ঘটেছে। রোগীকে নিয়ে ওর পরিবার ব্যস্ত। তাই অভিযোগ দিতে তাদের দেরি হচ্ছে। খবর পেয়ে সকালে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। বড়লেখা হাসপাতালে গিয়ে রোগীর খোঁজ নিয়েছে। রাতে তাকে সিলেটে পাঠিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে