আপডেট : ১০ জানুয়ারী, ২০১৯ ২০:৩৭

দশম শ্রেণির ছাত্রীর গালে চুমু, অতপর...

অনলাইন ডেস্ক
দশম শ্রেণির ছাত্রীর গালে চুমু, অতপর...

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় দশম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে প্রকাশ্যে ‘জোরপূর্বক’ চুমু দেওয়ার অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বুধবার রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নালিতাবাড়ী উপজেলার দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রায়ই রাস্তা-ঘাটে উত্ত্যক্ত করতেন নলজোরা গ্রামের মেহেদী হাসান (২০)। কিন্তু ওই ছাত্রী এতে রাজি না হয়ে পরিবারের লোকদের বিষযটি জানায়। এরপর থেকে স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই ওই ছাত্রীর ভাই ছোট বোনকে পথে এগিয়ে দিয়ে যেতেন। কিছুদিন আগে বাড়ি থেকে বিদ্যালয়ে আসার পথে মেহেদী ও তার বন্ধুরা ওই ছাত্রীর সঙ্গে তার ভাইকে আসতে দেখে মারধর করেন। পরে এ নিয়ে গ্রাম্য সালিশে বিষয়টি সুরাহা করা হয়।

গত সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই ছাত্রী বিদ্যালয় থেকে বাড়ি যাচ্ছিল। পথে চেল্লাখালী নদীতীরবর্তী রাস্তায় মেহেদী তার বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে তার পথ রোধ করেন এবং প্রকাশ্যে গালে চুমু দেন। বিষয়টি জানাজানি হলে ভোক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে গতকাল নালিতাবাড়ী থানায় অভিযোগ দাখিল করেন।

অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে রাতেই পুলিশ অভিযান চালিয়ে মেহেদী হাসান, তার বন্ধু দক্ষিণ রানীগাঁও গ্রামের মুছা মিয়া (১৯) ও কৃষ্ণপট্টি গ্রামের তুষারকে (২০) গ্রেপ্তার করে। বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃত যুবকদের আদালতে সোপর্দ করা হলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সরকার হাসান শাহরিয়ার তাদের জেলা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। একই দিন আদালতে শ্লীলতাহানির শিকার ওই স্কুলছাত্রীর জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে। ওই ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় চলছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের বলেন, অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিন আসামিকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দ্রুত তদন্ত শেষে তাদেরকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে