আপডেট : ১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ১৩:৫৪

গৃহকর্মীকে অমানুষিক নির্যাতন, গৃহকর্ত্রী গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক
গৃহকর্মীকে অমানুষিক নির্যাতন, গৃহকর্ত্রী গ্রেফতার

বরিশাল শহরে লামিয়া আক্তার মারিয়া (১২) নামে এক শিশু গৃহপরিচারিকার ওপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছে বাসার লোকজন। একটি কক্ষে আটকে রেখে দিনের পরে দিন এই বর্বরতা চালানো হয়েছে।

সোমবার (১৫ অক্টোবর) রাতে শহরের ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের মদিনা মসজিদ এলাকা থেকে বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি টিম শিশুটিকে উদ্ধার করেছে।

সেই সাথে ওই বাসার গৃহকর্ত্রী শারমিন আক্তারকে গ্রেফতার করেছে। তবে এসময় গৃহকর্তা এনজিওকর্মী আশরাফুল চৌধুরীকে বাসায় পায়নি পুলিশ।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোর গ্রামের ইকবাল সরদারের মেয়ে শিশু লামিয়া আক্তার মারিয়া গত ৪ মাস আগে বাসার টুকিটাকি কাজ করানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে নিয়ে আসেন আশরাফুল চৌধুরী ও তার স্ত্রী শারমিন আক্তার।

কিন্তু অভিযোগ রয়েছে, মেয়েটিকে নিয়ে আসার পরে বাসার সমস্ত কাজ করানো হচ্ছিল। সেই কাজে কোন ধরনের ত্রুটি হলে একটি কক্ষে আটকে অমানুষিক নির্যাতন করতেন এনজিওকর্মী আশরাফুল চৌধুরী ও তার শারমিন আক্তার। সর্বশেষ শিশুটিকে বেধম মারধর করে শরীরের বিভিন্ন স্থান ক্ষতবিক্ষত করেছে। এমনকি দুটি চোখের উপর ও নিচের অংশও মারধরে ফুলে রক্তজমাট বাধে। কিন্তু তাকে কোন ধরনের চিকিৎসা না দিয়ে আবারও নির্যাতন করা হয়।

এই বিষয়টি সম্পর্কে সোমবার বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ফেসবুক পেইজে কোন ‍এক ব্যক্তি অভিযোগ আকারে তুলে ধরেন। পরবর্তীতে মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মোশারেফ হোসেনের নির্দেশনা পেয়ে গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইউনুস ফরাজির নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়। সেই অভিযানে শিশু লামিয়াকে উদ্ধার ও গৃহকর্ত্রী শারমিন আক্তারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে ওই সময় গৃহকর্তা আশরাফুল চৌধুরীকে পাওয়া যায়নি।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বরিশাল মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশের সহকারি কমিশনার (এসি) নাসির উদ্দিন মল্লিক জানিয়েছেন, এই ঘটনায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতির পাশাপাশি পলাতক গৃহকর্তাকে গ্রেফতারে কাজ করা হচ্ছে।

সেই সাথে নির্যাতনের শিকার শিশুটির মা বাবাকে খবর দেওয়া হয়েছে। তদের কাছে শিশুটিকে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান এসি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রুমা

উপরে