আপডেট : ২২ জুলাই, ২০১৮ ১৭:১২

মাহমুদুর রহমানকে মেরে রক্তাক্ত করেছে ছাত্রলীগ

অনলাইন ডেস্ক
মাহমুদুর রহমানকে মেরে রক্তাক্ত করেছে ছাত্রলীগ

কুষ্টিয়া আদালত প্রাঙ্গণে দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। 

আজ রোববার (২২ জুলাই) বিকেল ৪.৩০ মিনিটে আদালত থেকে বের হলে আদালত প্রাঙ্গনেই বর্বর এই হামলার শিকার হন। পরে তাকে নিয়ে মহিলা আইনজীবী সমিতির এডভোকেট সামস তামিম মুক্তির চেম্বারে অবস্থান নিলে ছাত্রলীগ সেখানেও হামলা চালায়।

উল্লেখ্য, আজ সকালে মাহমুদুর রহমান কুষ্টিয়া আদালতে ৫০০ ধারার মানহানি মামলায় জামিন নিতে যান। হাজির হওয়ার পর আদালত জামিনও মঞ্জুর করেন। পরে পুলিশি প্রোটেকশনে ঢাকার পথে রওনার নির্দেশ দেন আদালত।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করে তিনি বলেন, একটি রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় জামিন নিতে মাহমুদুর রহমান কুষ্টিয়া আদালতে যান। হাজির হওয়ার পর আদালত জামিনও মঞ্জুর করেন এবং তাঁকে পুলিশের নিরাপত্তায় নিরাপদে ঢাকায় ফেরার ব্যবস্থার আদেশ দেন। কিন্তু ততক্ষণে আদালত এলাকায় জমায়েত হয় সরকারদলীয় স্থানীয় কর্মী সমর্থকরা। তারা মাহমুদুর রহমানের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে থাকে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষারের করা একটি মানহানি মামলায় আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান জামিন নিতে কুষ্টিয়া আদালতে যান।

বেলা ১২টায় কুষ্টিয়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এমএম মোর্শেদ ১০ হাজার টাকা জামানতে মাহমুদুর রহমানের স্থায়ীভাবে জামিন মঞ্জুর করেন। তার জামিন মঞ্জুর করায় অসন্তোষ প্রকাশ করে ছাত্রলীগ নেতারা আদালত চত্বরে মাহমুদুর রহমানের বিচার চেয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন এবং এজলাসের ভেতর তাকে অবরুদ্ধ করে রাখেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১ ডিসেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ডেমোক্রেটিক কাউন্সিল আয়োজিত আলোচনাসভায় আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান বঙ্গবন্ধু তার কন্যা শেখ হাসিনা ও নাতনি টিউলিপ সিদ্দিকীকে নিয়ে কটূক্তিমূলক বক্তব্যে দেন।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষার গত বছরের ১০ ডিসেম্বর আমার দেশ সম্পাদকের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মানহানি মামলা করেন। ওই মামলায় রোববার আমার দেশ সম্পাদক আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে বিচারক তার জামিন আবেদন মঞ্জুর করে স্থায়ী জামিনের আদেশ দেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে