আপডেট : ১১ জুলাই, ২০১৮ ২০:০৩

পুলিশের মোটরসাইকেলে ইয়াবা বিক্রি, অতঃপর...

অনলাইন ডেস্ক
পুলিশের মোটরসাইকেলে ইয়াবা বিক্রি, অতঃপর...

হবিগঞ্জের বাহুবলে পুলিশের মোটরসাইকেলে করে ইয়াবা বিক্রিকালে সালাউদ্দিন (২২) নামের এক মাদক বিক্রেতাকে আটকের ঘটনায় পুলিশের এএসআই কবিরকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বুধবার (১১ জুলাই) দুপুরে হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার তাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করেন।

গ্রামবাসী সূত্রে জানায়, আটক সালাউদ্দিন প্রায় দুই বছর ধরে বাহুবল উপজেলার সাতপাড়িয়া গ্রামের তাহির মিয়ার ডেনিং ওয়ার্কসপে কাজ করছিলেন। মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে পশ্চিম জয়পুর গ্রামের শাহিন মিয়ার কাছে ইয়াবা বিক্রি ও ইয়াবার টাকা নিতে আসেন।

আটককৃত সালাউদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে বাহুবল থানার এএসআই কবীরের মালিকাধীন মোটরসাইকেল দিয়ে মাদক চালানের কাজে ব্যবহার করে আসছিলেন। মঙ্গলবারও তিনি মাদক বিক্রি করতে গেলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে মারধর করে। এ সময় সালাউদ্দিনের দেহ তল্লাশি করে পাঁচ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

পরে সালাউদ্দিন জানান, অনেক দিন ধরে এএসআই কবীরে সাথে মিলেই কমিশনের মাধ্যমে মাদক বিক্রি করে আসছিলেন। এদিনও কবীর তাকে পশ্চিম জয়পুর গ্রামের ইয়াবা বিক্রেতা শাহিন মিয়ার কাছে ইয়াবা পৌঁছে দিতে এবং টাকা আনতে পাঠান।

পরে থানার এসআই অমৃত ও এএসআই সেলিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে মোটরসাইকেলসহ তাকে থানায় নিয়ে আসেন।

এ ঘটনায় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার বিধান ত্রিপুরা পুলিশের এএসআই কবিরকে প্রাথমিকভাবে বাহুবল থানা থেকে প্রত্যাহার করে নেন।

বাহুবল মডেল থানার ওসি মাসুক আলী যোগাযোগ করলে তিনি জানান, তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। যাচাই-বাছাই করে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে