আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:৫৫

মায়ের কোলে চড়ে আদালতে হাজিরা দিল শিশু আসামি

অনলাইন ডেস্ক
মায়ের কোলে চড়ে আদালতে হাজিরা দিল শিশু আসামি

মায়ের কোলে চড়ে আরিফ নামে আড়াই বছরের এক শিশুকে আসামি হিসেবে আদালতে হাজিরা দিতে আসার খবর পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে জামালপুরের জেলা জজ আদালতে। পরে অবশ্য আদালত মামলার বাদীকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালে বকসিগঞ্জ উপজেলার নিলক্ষিয়ার পশ্চিম বেপারিপাড়া এলাকার বাসিন্দা মো. আবু হানিফ তার প্রতিবেশী ছোহরাব আলী ও তার স্বজনদের কাছ থেকে ৪ শতাংশ জমি ক্রয় করেছিলেন। ওই জমির দখল বুঝে না পেয়ে তিনি ওই আড়াই বছরের শিশু আরিফ সহ সাত জনকে আসামি করে জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

আরও জানা যায়, ওই মামলার প্রাপ্ত বয়স্ক ৬ আসামি এবং আড়াই বছরের শিশু আরিফকে কোলে নিয়ে তার বিধবা মা রবিরন গত ১৯ ফেব্রুয়ারি জামিনের প্রার্থনায় আদালতের এজলাসে হাজির হন। এ সময় আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মো. ওয়াহিদুজ্জামান ৬ জন আসামি দেখে আরেকজন আসামি কোথায় জানতে চাইলে এজলাসে উপস্থিত বিধবা রবিরন তার কোলের আড়াই বছরের শিশু আরিফকে দেখিয়ে বলেন এই শিশুটিই মামলার ৭ নম্বর আসামি। আসামি পক্ষের আইনজীবীরাও আদালতকে বিষয়টি অবহিত করেন। এ সময় বিচারক মো. ওয়াহিদুজ্জামান বিস্ময় প্রকাশ করে মামলার বাদী মো. আবু হানিফের বিরুদ্ধে আটকাদেশ জারি করেন। একই সাথে শিশু আরিফকে তার মায়ের হেফাজতে দিয়ে অবশিষ্ট ৬ আসামির জামিন মঞ্জুর করেন। পুলিশ মামলার বাদী আব্দুল হানিফকে তাৎক্ষণিক গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন।

উল্লেখ্য, মামলার আরজিতে ৭ নম্বর আসামি আরিফের নামের পাশে বয়স উল্লেখ ছিল না

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রুমা

উপরে