আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০১৭ ২০:১৮

ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়ক অবরোধ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়ক অবরোধ

সড়ক সংস্কারের দাবিতে ২ ঘন্টাব্যাপী ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়ক অবরোধ করেছে শ্রমিকেরা। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সকাল সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত সড়ক অবরোধ করে রাখে শ্রমিকেরা।

ডাকবাংলা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস আই আবুল কাশেম জানান, সকালে ঝিনাইদহ থেকে চুয়াডাঙ্গাগামী একটি ট্রাক ডাকবাংলা এলাকায় ভাঙ্গা রাস্তায় উল্টে যায়। এতে শ্রমিকেরা ক্ষুব্ধ হয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখে। এসময় রাস্তার দুই পাশে শত শত যানবাহন আটকা পড়ে। প্রচন্ড বৃষ্টিতে ভোগান্তীতে পড়ে সাধারণ যাত্রীরা। দ্রুত ভাঙ্গা সড়ক মেরামত করা হবে সড়ক বিভাগের কর্মকর্তাদের এমন আশ্বাসে শ্রমিকেরা সড়ক অবরোধ তুলে নেয়।

উল্লেখ্য, ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা মহাসড়কের আমেরচারা থেকে ডাকবাংলা ত্রিমহনী পর্যন্ত সড়ক এখন মরণ ফাঁদ। এই সড়কে সব ধরনের যান চলাচল করছে ঝুঁকি নিয়ে। রাস্তার কাজ শেষ না করে ঠিকাদার লাপাত্তা। ভালো রাস্তা খুঁড়ে এভাবে ফেলে রাখায় এলাকাবাসীর মধ্যে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, চুয়াডাঙ্গা-ঝিনাইদহ মহাসড়কটির নির্মাণ কাজ দুই বছর আগে শুরু হলেও গত দেড় বছর যাবৎ তা বন্ধ রয়েছে। নির্মাণ কাজ শেষ না করে ভাঙাচোরা অবস্থায় ফেলে রাখায় সড়কটির এখন বেহাল দশা। যা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ফলে প্রতিদিন কষ্ট করে চলাচল করছে শতশত গণপরিবহন। 

জেলা সড়ক পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, বৈডাঙ্গা বাজারের পশ্চিম দিকে আদর্শ পাড়া থেকে উত্তর নারায়নপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত প্রায় ৫০০ মিটার পুরাতন সড়ক ভেঙে নতুন করে নির্মাণ কাজ শুরু হয়। প্রায় দেড় বছর পূর্বে শুরু করলেও আজও নির্মাণ কাজ শেষ করেনি সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন ওই স্থানে ২/৩ টি যানবাহন বিকল হয়ে পড়ে বা উল্টে যায়। দ্রুত সড়কটি সংস্কার করে দুর্ভোগ লাঘবের দাবি জানান তিনি।

ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী এস এম মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, দ্বায়িত্বভার গ্রহণের পর বিষয়টি শুনেছি। তাৎক্ষনিক ভাবে পুর্বের ঠিকাদারের কাজ বাতিল করা হয়েছে এবং নতুন ঠিকাদার নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। দ্রুত সড়কটি সংস্কার করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আশা করছি খুব শিগগিরই সড়কটি চলাচলের উপযোগী করে তোলা হবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে