আপডেট : ২৮ মার্চ, ২০১৬ ১৩:২৫

কাঠালিয়ায় ধর্ষণ করতে যেয়ে লিঙ্গ হারালেন পুলিশের সোর্স

বিডিটাইমস ডেস্ক
কাঠালিয়ায় ধর্ষণ করতে যেয়ে লিঙ্গ হারালেন পুলিশের সোর্স

ঝালকাঠির কাঁঠালিয়ায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করতে গিয়ে থানা পুলিশের অন্যতম দালাল আব্দুল মন্নান (রেন্ট-এ-কার মন্নান) গণধোলাই ও লিঙ্গ কর্তনের শিকার হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

২৬ মার্চ শনিবার গভীর রাতে উপজেলার আমরিবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

দুই সন্তানের জননী ভিকটিম ও এলাকাবাসী জানায়,  মন্নান বহুদিন র ভিকটমকে  কু-প্রস্তাব  দিয়ে আসছিল। এ প্রস্তাবে গৃহবধূ রাজী না হওয়ায় তার স্বামীর বিরুদ্ধে চুরির মিথ্যে অভিযোগ তুলে বাড়ি ছাড়া করে। ঘটনার রাতে  মন্নান ভিকীমের বাড়িতে গিয়ে দরজায় নক করলে, দরজা খুলে সে মন্নানকে দেখতে পায়। কিছু বুঝে না উঠতেই মন্নান তার মুখ চেপে ধরে ভয়ভীতি দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে।  এ  সময় গৃহবধূ ছুড়ি দিয়ে  লিঙ্গে আঘাত করে। উভয়ের ডাক চিৎকারের প্রতিবাসিরা এগিয়ে এসে গণধোলাই দেয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মাঈনুল হোসেন জানাান, আমি বিষয়টি চেয়ারম্যানকে অবহিত করে গুরুতর আহত মন্নানকে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে পাঠিয়ে দেই। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আহত মন্নানকে রোববার দুপুরে বরিশাল শেরই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রেরণ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, রেন্ট এ কার মন্নান দীর্ঘ দিন যাবত কাাঁঠালিয়া থানা পুলিশের অন্যতম দালাল   হিসেবে কাজ করে আসছিল। থানার ওসি থেকে শুরু করে অধিকাংশ দারোগার উৎকোচের প্রধান মাধ্যম এ মন্নান। হয়রানীর ভয়ে মামলার সাধারণ বাদী ও বিবাদী টতস্থ থাকত। নারী সংঘটিত এমন অনৈতিক কাজে কোন কোন পুলিশ সদস্যকেও সহযোগিতার করার অভিযোগ রয়েছে।

থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক আঃ মালেক জানান, এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়নি।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মন্নান জানায়, কয়েকজন লোক তার চোখ বেঁধে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে বেধম মারধর করে প্রাণ নাশের চেষ্টা করছিল।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে