আপডেট : ২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৩:২৪

ধর্ষণ করতে গিয়ে লিঙ্গ হারালেন আওয়ামী লীগ নেতা

বিডিটাইমস ডেস্ক
ধর্ষণ করতে গিয়ে লিঙ্গ হারালেন আওয়ামী লীগ নেতা
পাবনার চাটমোহরে অন্যের স্ত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টকালে এক সন্তানের জনক এক আওয়ামী লীগ কর্মীর পুরুষাঙ্গ কর্তনের ঘটনা ঘটেছে।
 
বুধবার ভোর রাতে উপজেলার চরনবীন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
 
হান্ডিয়াল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা রবিউল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
 
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, হান্ডিয়াল ইউনিয়নের চরনবীন গ্রামের মৃত ছামাদ ফকিরের ছেলে জাইদুল (৩৫) উপজেলার গুনাইগাছা ইউনিয়নের নতুনপাড়া গ্রামের হাসান আলীর স্ত্রী দুই সন্তানের জননী রাবেয়া (২৫) পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে তার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। বুধবার ভোর রাতে জাইদুল রাবেয়ার সাথে জোরপূর্বক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করলে রাবেয়া ব্লেড দিয়ে জাইদুলের পুরুষাঙ্গ কেটে দেন।
 
স্বজনরা গুরুতর আহতাবস্থায় চিকিৎসার জন্য জাইদুলকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে।
ওই গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী আসাদ জানান, বিষয়টি লজ্জাজনক হওয়ায় দিনভর আমরা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছি। তিনি বলেন, লিঙ্গ কর্তনের শিকার যুবকও একজন আওয়ামী লীগের কর্মী এবং শ্রমিক সরদার।
 
চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। তাকে চিকিৎসার জন্য রাজশাহী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
 
এ বিষয়ে চাটমোহর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুব্রত কুমার সরকার বিডিটাইমস৩৬৫ডটকমকে বলেন, এ ব্যাপারে আমার কাছে কোনো অভিযোগ আসেনি।
 
বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম
 
 
উপরে