আপডেট : ২ মার্চ, ২০১৬ ১১:১১

পান বিক্রেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা!

বিডিটাইমস ডেস্ক
পান বিক্রেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা!

সিলেটের প্রত্যন্ত এলাকার একটি বাজারের পান বিক্রেতা বাবুল। পুরো নাম বাবুল আহমেদ। গত ৬ জানুয়ারি বাবুল একটি চিঠি লেখেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের কাছে। চিঠিতে তিনি মানবতাবিরোধী অপরাধে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামীসহ অপরাধীদের মৃত্যুদণ্ড না দিয়ে তাঁদের খালাস দেওয়ার আহ্বান জানান।

এই অপরাধে সেই পান বিক্রেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার অনুমোদন দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এ অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ওই চিঠিতে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিচারকদের সম্পর্কে ঘৃণা ও অবজ্ঞা প্রকাশ করা হয়েছে। রাজধানীর শাহবাগ থানায় এ নিয়ে একটি সাধারণ ডায়েরি লিপিবদ্ধ হয়। এর ভিত্তিতে সিলেটের স্থানীয় পুলিশ তাঁকে গ্রেপ্তার করে ঢাকায় পাঠায়। পরে বাবুল আহমেদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা দায়েরের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে অনুমতি চায় পুলিশ। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, বাবুলের কর্মকাণ্ড দণ্ডবিধির ১২৪-ক ধারায় বর্ণিত অপরাধের শামিল। এ জন্য এ অভিযোগে মামলা দায়ের করতে সরকারের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বাবুলের মা মিনারা বেগম জানান, ‘আমার ছেলে বাজারে পান বিক্রি করে। সে রাজনীতি বোঝে না। তার পান দোকানে এসে বিভিন্ন জন যা আলাপ করে তাই সে মাথায় নেয়। এভাবেই সে চিঠি লিখে পাঠিয়েছে। খামে নিজের ঠিকানাও দিয়ে দিয়েছে। সরল আর বোকা না হলে কেউ নিজের ঠিকানা দেয়? সরকার যদি এই অশিক্ষিত লোকের কথায় এমন বড় মামলা দেয়, তাহলে তো প্রতিদিন মামলা হবে।’ 

স্থানীয় বৈরাগীবাজার গ্রামের লোকজন জানান, বাবুল খুব সহজ সরল ছেলে। না বুঝে এসব করেছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব এ এম তৌহিদুল আলম জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা করার অনুমতি দেওয়ার পর এখন থানা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি তদন্ত করে দেখবে।
শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক জানান, অভিযোগ অনুযায়ী তাঁরা শুধু থানায় সাধারণ ডায়েরি লিপিবদ্ধ করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ।

উপরে