আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:২৮

নাজিরহাটে বিয়ের দিন বরের মৃত্যু

বিডিটাইমস ডেস্ক
নাজিরহাটে বিয়ের দিন বরের মৃত্যু

বিয়ে বাড়িতে মেহমানের ভরপুর, রান্না করা হয়েছে খাবার দাবার। কনে পক্ষের সবকিছু প্রস্তুত, তার আগের দিন কনের হাত রাঙ্গিয়েছে মেহেদীতেও। শুধুই বাকি ছিল আকদ শেষে বউ নিয়ে বাড়ি আসা। মুহুর্তেই খবর এলো বর আর বেঁচে নেই ! বিয়ের দিন সকাল এগারোটায় চমেক হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

এমনি মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে ফটিকছড়ি উপজেলার নাজিরহাট পৌরসভাধীন কুম্ভারপাড়া এলাকায়। বর সৌদি প্রবাসী মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন (২৭)। তিনি ওই এলাকার মৃত আবুল হোসেন ড্রাইবারের ছেলে।

উপজেলার সুয়াবিল বারমাসিয়া গ্রামের সামশুল আলমের কন্যা পারভিন আকতারের সাথে সামজিকভাবে বিবাহের দিন ছিল আজ বুধবার। কিন্তু বিবাহের দিনেই মৃত্যু হলো বর জয়নালের। তার এ অকাল মৃত্যুর রহস্য নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। তার পরিবারের দাবী জয়নালকে খাবারের সাথে বিষ মিশিয়ে হত্যা করেছে তারই প্রতিবেশী ভাবী সম্পর্কের রিনা আকতার (২৮)। তিনি ওই এলাকার প্রবাসী জানে আলমের স্ত্রী। জয়নালের টাকা পয়সার লোভে ও তার সাথে পূর্বে প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে কৌশলে খাবারের সাথে বিষ মিশেয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে দাবী করেন পরিবারের সদস্যরা। তাদের ভাষ্য মতে, মূলত জয়নাল অন্য একজনকে বিয়ে করে সংসার করুক তা মেনে নিতে পারেননি ভাবী রিনা। তবে, এ অভিযোগের ব্যাপারে ভাবী রিনার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, জয়নালের লাশ ময়না তদন্তছাড়া দুপুর একটার দিকে চমেক হাসপাতাল থেকে বাড়ি নিয়ে আসেন। গতকাল (মঙ্গলবার) সকাল থেকে শরীর অসুস্থবোধ করলে প্রথমে নাজিরহাটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্যকন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয় জয়নালকে। সেখানে তার অবস্থা গুরুতর দেখে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করেণ কর্তব্যরত চিকিৎসক। চমেক হাসপাতালে চিকিৎসার পর তার অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে জয়নাল নিজেই বলেন, ‘আমি দুপুরে বাড়ি এসে বিয়ের সবকিছু সম্পন্ন করব।’

জয়নালের বোন জামাই আব্দুল মন্নান বলেন, ‘মূলত তিন-চার দিন পূর্ব থেকে সে অসুস্থতা বোধ করছিল। আমরা তাকে প্রথমে প্রাইভেট ক্লিনিকে চিকিৎসা প্রদান করি। কি রোগে ভোগছিল সে তা নির্ণয় করার আগেই তার মৃত্যু হয়ে গেল।’

জয়নালের একই নামের তার এক বন্ধু বলেন, ‘আমরা একসাথে সৌদি আরবে থাকি। গত ২৭ ডিসেম্বর আমরা বাড়ি আসি। তার সাথে ওই ভাবীর ফোনালাপ হতো। এখানে আসার পর, প্রায় সময় তার ঘরে যেত জয়নাল।’

এদিকে তার এ মৃত্যু রহস্যের কারণ উদঘাটনে জন্য লাশ ময়নাতদন্ত করা দরকার বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর হাফেজ আব্দুল্লাহ।

পুলিশ জানিয়েছে, এ ব্যাপারে জয়নালের পরিবার থেকে কেউ অভিযোগ দিলে পুলিশ লাশের ময়নাতদন্তসহ প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে