আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৮:৫৪

মানিকগঞ্জে ধর্ষণ মামলার আসামির যাবজ্জীবন

বিডিটাইমস ডেস্ক
মানিকগঞ্জে ধর্ষণ মামলার আসামির যাবজ্জীবন

মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার ধামশ্বর লক্ষীদিয়া গ্রামে দশম শ্রেণির একছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে আদালত অখিল চন্দ্র রাজবংশী (৩৫) নামে একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে।

একইসঙ্গে তাকে করা হয়েছে ১০,০০০ টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড।

মঙ্গলবার দুপুরে মানিকগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক হাছিনা রৌশন জাহান এই রায় দেন।

অখিল ওই গ্রামের সুবল চন্দ্র রাজবংশীর ছেলে। এই মামলায় ৪২ দিন হাজতবাস করে জামিনে বেরিয়ে পলাতক রয়েছেন তিনি।

মামলা সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা জানান, গত ২০০৮ সালের ১৪ জুন রাত ১০টার দিকে ওই স্কুলছাত্রী প্রতিবেশীর বাড়ি টেলিভিশন দেখে বাড়ি ফিরছিলেন। এ সময় বাড়ির পাশে আম গাছের নিচে নিয়ে মেয়েটির ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ধর্ষণ করেন অখিল।

এক পর্যায়ে মেয়েটি মুখের ওড়না খুলে ডাক-চিৎকার দিলে স্বজন ও প্রতিবেশীরা এসে অখিলকে হাতেনাতে ধরেন। ধস্তাধস্তির মধ্যে এক ফাঁকে পালিয়ে যান তিনি।

এ ঘটনায় স্থানীয়ভাবে মীমাংসার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন স্বজনরা। এরপর ওই বছরের ২৬ জুন অখিলের বিরুদ্ধে আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯(১) ধারায় মামলা করেন ভূক্তভোগী মেয়েটি।

২০০৯ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি পুলিশ গ্রেপ্তার করলে ৪২ দিন হাজতবাস করেন অখিল। এরপর জামিনে বেরিয়ে পালিয়ে যান তিনি।

আদালত আসামির অনুপস্থিতিতে অভিযোগ গঠন ও ১০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করে। রায় ঘোষণার ধার্য দিনে বিচারক অখিলকে দোষী স্যবাস্ত করে ওই কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন বলেও জানান আইনজীবীরা।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী পিপি একেএম নরুল হুদা রুবেল রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।  কিন্তু আসামী পক্ষের আইনজীবী মনোয়ার হোসেন আলিম রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে জানান, আসামি ন্যায় বিচার পাননি। ন্যায় বিচারের জন্য উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

 

উপরে