আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:৩০

চিকিৎসা অবহেলায় অঙ্গহানি; সিলেটে ৫০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা

বিডিটাইমস ডেস্ক
চিকিৎসা অবহেলায় অঙ্গহানি; সিলেটে ৫০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা

চিকিৎসা অবহেলায় অঙ্গহানির অভিযোগে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকার ক্ষতিপূরণ মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে বাংলাভিশনের সিলেট অফিসের স্টাফ ক্যামেরাপার্সন বদরুর রহমান বাবর সিলেটের যুগ্ম জেলা জজ দ্বিতীয় আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় তাঁর শিশুপুত্রে সাফির চিকিৎসায় অবহেলা করে আঙ্গুলে ‘গ্যাংরিন’ হওয়ায় মৃত্যু আশঙ্কা সৃষ্টি করার জন্য ২৫ লাখ টাকা, গ্যাংরিন হওয়ায় আঙ্গুল কেটে ফেলার ক্ষতিপূরণ বাবদ ১৫ লাখ টাকাসহ দীর্ঘমেয়াদি চিকিৎসাসহ আনুষঙ্গিক খরচসহ ৫০ লাখ টাকার হিসেব দাখিল করা হয়। চিকিৎসা চলমান থাকায় ক্ষতিপূরণের পরিমাণ পরবর্তীতে আরো বাড়তে পারে বলে মামলার আবেদনে উল্লেখ করা হয়।

 

মামলায় আসামী করা হয়েছে হলি সিলেট হোল্ডিংস লিমিটেড (সিলেট উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল) এর পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান  ড. ওয়ালী তছর উদ্দিন, ম্যানেজিং ডাইরেক্টর মো. মজম্মিল আলী (সানু), পরিচালক ব্রিগেডিয়ার (অব.) ডা. মোজাম্মেল, সিলেট উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অর্থপেডিক্স ও সার্জারি বিভাগের রেজিস্টার ডা. জাবের আহমদ, অর্থপেডিক্স সার্জারি বিভাগের এমও ডা. তানভীর আহমদ চৌধুরী, ইন্টার্ন শাফিনাজ মোস্তফা, অর্থপেডিক্স ও সার্জারি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. কাজী মো. সেলিম, অর্থপেডিক্স ও সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মাহমুদ হাসান, ব্রাদার তারেক।

এ ব্যাপারে মামলার বাদী বাংলাভিশনের সিলেট অফিসের স্টাফ ক্যামেরাপার্সন বদরুর রহমান বাবর জানান, চিকিৎসকদের অবহেলার কারণে আমার ছেলে স্বাভাবিক জীবন যাপন করতে পারছে না। সে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানে চাকুরী করতে পারবে না। হাসপাতালে অবহেলাপূর্ণ চিকিৎসাই এর জন্য দায়ি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

 

উপরে