আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২০:২৪

প্রেমের ‘অপরাধে’ প্রেমিক-প্রেমিকাকে প্রকাশ্যে জুতাপেটা, ভিডিও প্রকাশ

বিডিটাইমস ডেস্ক
প্রেমের ‘অপরাধে’ প্রেমিক-প্রেমিকাকে প্রকাশ্যে জুতাপেটা, ভিডিও প্রকাশ

তাদের ‘অপরাধ’ তারা প্রেম করে। আর এই ‘অপরাধের’ জন্য তাদের এক দড়িতে বেঁধে জুতোপেটা করেছে গ্রামের প্রভাবশালীরা। দুই কিশোর-কিশোরীকে এমন জুতোপেটার ভিডিও ফুটেজ ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ায় ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ৯ ফেব্রুয়ারি শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় স্কুলমাঠে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন ধরে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পরে এই দুই কিশোর-কিশোরী। বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগে গত ৯ ফেব্রুয়ারি তাদের আটক করে স্থানীয়রা। এরপর তাদের ধরে কুন্ডেরচর আবদুল মান্নান মল্লিককান্দি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যান স্থানীয় ইউপি সদস্য কামাল হোসেন ও সুলতান মল্লিক। তাদের নেতৃত্বেই প্রেমিকযুগলের উপর নির্যাতন করা হয়। তাদেরকে এক দড়িতে বেঁধে জুতা পেটা করে জুতার মালা পরিয়ে স্কুল মাঠে ঘোরানো হয়। কিশোরী ওই স্কুলেরই ছাত্রী। জুতার পেটন খেয়েও মুক্তি মেলেনি তাদের। রাতে স্কুলের একটি ভবনে আটকে রেখেও তাদের ব্যাপক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রেমিকযুগলকে নির্যাতনের খবর পেয়ে পরের দিন স্কুল মাঠে ছুটে আসেন তাদের পরিবার। এরপর মারাত্মক আহত তাদেরকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান । গত ১৩ দিনেও সুস্থ হয়ে ওঠেনি নির্যাতনের শিকার ওই কিশোর-কিশোরী।

কিশোরীর বাবা নিয়েছেন, মামলা করলে প্রভাবশালীরা তাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছেন। তাই তিনি আইনি পদক্ষেপ নিতে ভয় পাচ্ছেন।

এদিকে নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে কুন্ডেরচর ইউপি চেয়ারম্যান এবং মেম্বারের বক্তব্য ভিন্ন। মেম্বার এ ঘটানকে সামাজিক বিচার বললেও এ ঘটনাকে অমানবিক বলেছেন চেয়ারম্যান। চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন বেপারী এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন।

এ ব্যাপারে জাজিরা থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে