আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:০৫

নরসিংদীতে দুর্বৃত্তের চাপাতির কুপে প্রাণ গেলো দুই যুবকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
নরসিংদীতে দুর্বৃত্তের চাপাতির কুপে প্রাণ গেলো দুই যুবকের

নরসিংদীতে জায়েদুল ও জয় নামে দুই যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় দুর্বৃত্তদের অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে মিতু বেগম নামে এক কিশোরী।

শনিবার দুপুরে নরসিংদী শহরতলির গাবতলী কবরস্থানসংলগ্ন একটি কাঠবাগানে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জায়েদুল শিবপুর উপজেলার আইয়ুবপুর গ্রামের জালাল খানের ছেলে ও জয় সদর উপজেলার ঘোড়াদিয়া গ্রামের বোরহান উদ্দিনের ছেলে। আহত কিশোরী মিতু রায়পুরা উপজেলার বীরগাঁও গ্রামের জজ মিয়ার মেয়ে।

পুলিশ জানায়, কিশোরী মিতু বেগম বাসাবাড়িতে কাজের সন্ধানে শুক্রবার নরসিংদী শহরে আসার সময় পথে জায়েদুলের সঙ্গে পরিচয় ঘটে। শহরে চেনাজানা লোক না থাকায় পরিচয়ের সুবাধে শুক্রবার রাতেই জায়েদুল তার চাচীর বাসায় মিতুকে থাকার ব্যবস্থা করে দেয়।

শনিবার দুপুরে গাবতলী এলাকার একটি কাঠবাগানে বসে জায়েদুল, তার সহযোগী জয় ও মিতু কথা বলছিল। এ সময় পাঞ্জাবি পরা ১০-১৫ জনের একদল যুবক সেখানে গিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। এক পর্যায়ে ওই যুবকরা চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জায়েদুল, জয় ও মিতুকে আহত করে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই জায়েদুলের মৃত্যু ঘটে। স্থানীয়রা গুরুতর আহতাবস্থায় কিশোরী মিতুকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতাল ও অপর যুবককে সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। ঢাকায় নেওয়ার পথে মারা যায় জয়। ঠিক কী কারণে হত্যার ঘটনা ঘটেছে প্রাথমকিভাবে তা জানাতে পারেনি পুলিশ।

নরসিংদীর সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) মো. খালেদ ইবনে মালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

 

উপরে