আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:২৭

বরিশাল সদর উপজেলার ৫ ইউপি’তেই আ.লীগের বিদ্রোহী

বরিশাল সদর উপজেলার ৫ ইউপি’তেই আ.লীগের বিদ্রোহী

বরিশাল প্রতিনিধি

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় বরিশাল সদর উপজেলার দশ ইউনিয়নের পাঁচটিতেই বিদ্রোহী হয়েছেন আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। তারা সকলেই স্থানীয় সংসদ সদস্য  জেবুন্নেছা আফরোজ এর অনুসারী বলে জানা গেছে।

বিদ্রোহীরা হলেন, চরকাউয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক হারুন-উর রশীদ হাওলাদার, চরবাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সহিদুল ইসলাম ওরফে ইটালি সহিদ, টুঙ্গিবাড়িয়া ইউনিয়ন মিয়া নাছির,  চন্দ্রমোহন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি মতিউর রহমান ও জাগুয়া ইউনিয়নে  মো. শাহিন।

তবে অপর ৫টি ইউনিয়নে এখনও ওইরকম কোন প্রার্থীকে মাঠে পাওয়া যায়নি।

চরকাউয়া ইউনিয়নের বিদ্রোহী প্রার্থী হারুনর রশীদ হাওলাদার বলেন, সাবালক হবার পর থেকে আওয়ামীলীগ এর রাজনীতি করছি। সংগঠনের কারণে জীবনের সব খুইয়েছি। কিন্তু সংগঠনের যারা নেতৃত্ব দিচ্ছে তারা আমাদের মূল্যায়ন করছেন না। প্রয়াত এমপি হিরণ ভাই আমাকে আশ্বাস দিয়েছিলেন যে এবার আমাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে।

কিন্তু হিরন ভাই মারা যাবার পর সব উল্টে গেলো।মনিরুল ইসলাম ছবিকেই মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

সিনিয়র নেতারা যখন আমাকে দেয়া কথা রাখেনি তখন আমিও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবেই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।

একই ভাবে চরবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী হিসাবে মনোনয়ন নেয়া সহিদুল ইসলামকে এমপি জেবুন্নেছার সুপারিশে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে এমন বিষয় চাউর হলেও পরে তা মিথ্যে প্রমাণিত হয়। কারণ এ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাগাতাব হোসেন সুরুজ।

সহিদুল ইসলাম জানান, আমার গ্রহণ যোগ্যতা রয়েছে ভোটারদের কাছে। আর প্রথমে আমার নামই চুড়ান্ত করা হয়েছিলো আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে। কিন্তু পরে তা অজ্ঞাত কারণে উল্টে যায়। এ জন্য আমি বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করবো।

তবে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুছ বলেন, দলীয় মনোনয়ন মনোনয়ন বোর্ড সবদিক বিবেচনা করেই মনোনয়ন দিয়েছেন। মনোনয়ন প্রত্যাহরের দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে বিদ্রোহী হিসেবে কারা থাকে।

আশাকরি বরিশালে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের একক প্রার্থী থাকবে। এরপরও যদি দলের নির্দেশ উপেক্ষা করে এরকম সিদ্ধান্ত কেউ নিয়ে থাকে তাহলে সাংগঠনিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উল্লেখ্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বরিশাল সদর উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ তাদের প্রার্থী ইতোমধ্যে চূড়ান্ত করে ফেলেছে। বরিশাল সদর উপজেলার রায়পাশা কড়াপুরে মো. হাবিবুর রহমান খোকন, কাশীপুরে মো. কামাল হোসেন মোল্লা, চরবাড়িয়ায় মো. মাহতাব হোসেন, সায়েস্তাবাদে আরিফুজ্জামান মুন্না, চরমোনাইতে মো. নুরুল ইসলাম, জাগুয়ায় মোস্তাক আলম চৌধুরী, চরকাউয়ায় মো. মনিরুল ইসলাম, চাঁদপুরায় মো. হেলাল উদ্দীন খান, টুঙ্গীবাড়ীয়ায় বাহা উদ্দিন আহমেদ ও চন্দ্রমোহনে এ কে এম আবদুল আজিজ হাওলাদার মনোনয়ন পেয়েছেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

উপরে