আপডেট : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৯:৪৪

বরিশাল আইনজীবী সহকারি সমিতির নির্বাচনে নিষেধাজ্ঞা

বরিশাল আইনজীবী সহকারি সমিতির নির্বাচনে নিষেধাজ্ঞা

বরিশাল প্রতিনিধি 

বরিশাল আইনজীবী সহকারি সমিতির নির্বাচনে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন  আদালত। পাশাপাশি নওরোজ আলমের সদস্যপদ কেন বাতিল করা হয়েছে এই মর্মে প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ৩ জনকে কারণ দর্শানো আদেশ দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বরিশাল প্রথম যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক আব্দুল হামিদ এই আদেশ দেন।

সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল আইনজীবী সহকারি সমিতির নির্বাচন-২০১৬ উপলক্ষে গত ২ ফেব্রুয়ারী নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিল অনুযায়ী ভোটার হওয়ার শেষ দিন ১১ ফেব্রুয়ারী,  খসড়া ভোটার তালিকা প্রদান ১৪ ফেব্রুয়ারী,  চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ এবং মনোনয়নপত্র বিক্রি ১৫ ফেব্রুয়ারী, মনোনয়নপত্র দাখিল ১৬ ফেব্রুয়ারী,  মনোনয়নপত্র বাছাই ১৭ ফেব্রুয়ারী,  প্রত্যাহার ১৮ ফেব্রুয়ারি এবং নির্বাচন ২৯ ফেব্রুয়ারী।

নির্বাচনে সভাপতি পদের বিপরীতে মনোনয়নপত্র ক্রয় করেন নওরোজ আলম। মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দুই দিন আগে বরিশাল জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. আনিচ উদ্দিন আহমেদ শহিদ ১৬ ফেব্রুয়ারী বাদীর প্রতি অবৈধভাবে লাইসেন্স প্রদান ও চাঁদা আদায়ের রশিদ প্রদানের অভিযোগ এনে তার সদস্য পদ স্থগিত করেন।

নওরোজ আলম কারণ দর্শানোর জবাব ১৭ ফেব্রুয়ারী দেয়া সত্ত্বেও তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন নির্বাচন কমিশন।

বিবাদীরা যোগশাজোশে লাভবান হওয়ার জন্যে তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেছেন এই অভিযোগ তুলে বুধবার নওরোজ আলম বাদী হয়ে ৬ জনকে বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলে আদালত এ আদেশ দেন।

মামলার বিবাদীরা হলেন, বরিশাল আইনজীবী সমিমির সভাপতি, আইনজীবী সহকারী সমিতির প্রধান নির্বাচন কমিশনার, সহকারি নির্বাচন কমিশনার দুই জন, ও বর্তমান আইনজীবী সহকারি সমিতির সভাপতি ও সম্পাদক।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে