আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:২০

নদী বিষয়ক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ‘এসো নদীর ছবি আঁকি’

বিডিটাইমস ডেস্ক
নদী বিষয়ক চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ‘এসো নদীর ছবি আঁকি’

‘জানলে নদী, বাঁচবে নদী’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে কক্সবাজার শহরে হয়ে গেল ‘এসো নদীর ছবি আঁকি’ চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা।
১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার  সকালে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে কালেরকণ্ঠ শুভসংঘ ও বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের যৌথ আয়োজনে এই চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নদী পরিব্রাজক দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও নদী গবেষক মো. মনির হোসেন।
প্রতিযোগিতার সমন্বয়কারি মো. সরওয়ার আলমের সভাপতিত্বে এই অনুষ্টানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী সদস্য এড. রমিজউদ্দিন আহমেদ, সাংবাদিক ও কলামিস্ট বিশ্বজিত সেন, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলাম, কালের কণ্ঠ শুভসংঘের কক্সবাজার জেলা শাখার আহবায়ক বিপ্লব কান্তি দে, বাংলাদেশ নদী বাঁচাও আন্দোলন জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আনছার হোসেন, দৈনিক ইত্তেফাকের জেলা প্রতিনিধি মো. জুনায়েদ ও বাংলাদেশ নদী পরিব্রাজক দলের কেন্দ্রীয় সাংগাঠনিক সম্পাদক ইসলাম মাহমুদ।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার আর্ট একাডেমির পরিচালক মো. ফেরদৌস, নদী পরিব্রাজক দল কক্সবাজার জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল আলিম নোবেল, সাধারণ সম্পাদক মিনার হাসান, সাংগাঠনিক সম্পাদক মো. মনসুর, এশিয়ান টিভির প্রতিনিধি আরোজ ফারুক, কক্সবাজার টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমের নিজস্ব প্রতিবেদক মো. মনির।

চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় ক-গ্রুপে হিমাদ্রি পাল, প্রদীপ্ত দে ও স্নেহা পাল যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে। খ-গ্রুপে অরিজিত দাস, নিপল দে ও শাহরিয়ার লিয়াকত শাওন যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে এবং গ-গ্রুপে ফারদিনা ইসলাম ঐশী, তাসনোভা শামীম ইরা ও অরুপ শর্মা যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে।
এছাড়াও তিন গ্রুপ থেকে ৭ জন করে আরও ২১ জনকে বিশেষ পুরস্কার দেয়া হয়।

কক্সবাজারের অনলাইন নিউজ পোর্টাল কক্সবাজার ভিশন ডটকম সম্পাদক আনছার হোসেনের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বিচারক প্যানেল এই প্রতিযোগিতার ছবিগুলো মূল্যায়ন করেন। প্যানেলের অন্য দুইজন হলেন নদী গবেষক মো. মনির হোসেন ও সিটিএন সম্পাদক মো. সরওয়ার আলম।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ‘আমাদের নদী, আমাদের ভাষা আমাদের প্রাণ। আমরা নদীর পাড়ের সন্তান। নদীই আমাদের জীবন। নদীই আমাদের অবলম্বন। নদীকে কেন্দ্র করেই আমাদের বেঁচে থাকা।’
তারা মনে করেন, ‘নদী ভাবনা মানেই অস্থিত্বের ভাবনা, নিজের টিকে থাকার ভাবনা, নিজেকে সমৃদ্ধ করার ভাবনা।’
বক্তাগণ আরও বলেন, ‘প্রতিযোগিদের আঁকা ছবির মধ্যে নদীর দূষণ, দখল, ভরাট আর নান্দনিকতা যেভাবে ফুটে উঠেছে তাতে আমরা অভিভূত। আমরা নদী ভাবুক এই আগামি প্রজন্মের প্রতি কৃতজ্ঞ।’
এই প্রতিযোগিতায় কক্সবাজার শহরের বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্টানের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে।

উপরে