আপডেট : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২০:৫৭

চট্টগ্রামে লতিফ বিরোধী মানববন্ধনে দুপক্ষের সংঘর্ষ

বিডিটাইমস ডেস্ক
চট্টগ্রামে লতিফ বিরোধী মানববন্ধনে দুপক্ষের সংঘর্ষ

চট্টগ্রামের সদরঘাট এলাকায় সংসদ সদস্য এম এ লতিফের বিরুদ্ধে আয়োজিত মানববন্ধনে দুপক্ষের সংঘর্ষে অন্তত চারজন আহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে একজন ছুরিকাহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

পুলিশ বলছে, নেতৃত্ব দেওয়া নিয়ে আয়োজকদের দুই পক্ষ এই সংঘর্ষে জড়ায়। তবে আয়োজকরা তাদের কর্মসূচিতে হামলার অভিযোগ করেছেন।

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মিজানুর রহমান খান বলেন, বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতির অভিযোগে সদরঘাট মোড়ে সংসদ সদস্য এম এ লতিফের বিরুদ্ধে ওই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছিল।

‘সেখানে মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেওয়া নিয়ে আয়োজকদের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয় বলে প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি। এতে একজন ছুরিকাহত হয়েছেন। আর তিনজন সামন্য আহত হয়েছেন।’

পরে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নেপথ্যে অন্য কিছু আছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

অন্যদিকে নগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক সুজন বর্মন বলেন, ‘মানববন্ধন শেষে ফেরার পথে হামলার ঘটনা ঘটেছে। কারা হামলা করেছে তা আমরা জানি না।’

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির নায়েক পঙ্কজ বড়ুয়া বলেন, ছুরিকাহত মো. রাশেদ (২৩) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত।

চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী রাশেদ কলেজ ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

জাগ্রত ছাত্র যুব জনতা মাদারবাড়ি শাখার উদ্যোগে সোমবার বেলা দেড়টার দিকে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এই সংগঠনের ব্যানারে এর আগেও চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সাংসদ লতিফের বিরুদ্ধে কর্মসূচি পালন করা হয়, যাতে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ নেতাদের অংশ নিতে দেখা গেছে।

গত শনিবার আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চট্টগ্রাম সফরের আগে লতিফের নির্বাচনী এলাকায় (বন্দর, কাঠগড় ও পতেঙ্গা) সড়কের পাশে কয়েক ডজন বিলবোর্ড লাগানো হয়।

এসব বিলবোর্ডে বঙ্গবন্ধুর দাঁড়ানো অবস্থার একটি ছবি এবং এম এ লতিফের নামে দেওয়া বক্তব্য ছিল।

কিন্তু ওই ছবি নিয়ে ফেইসবুকে শুরু হয় তুমুল আলোচনা। বলা হয়, ছবির দেহাবয়ব, পাজামা ও জুতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

চট্টগ্রামের ছাত্র ও যুবলীগের একদল নেতা-কর্মী বিক্ষোভ-প্রতিবাদের পাশাপাশি ‘জামায়াত ঘনিষ্ঠ’ দাবি করে লতিফের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি তোলে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

 

উপরে