আপডেট : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৭:১৯

বরিশাল বিএনপিতে কাউন্সিলের হাওয়া

বরিশাল প্রতিনিধি
বরিশাল বিএনপিতে কাউন্সিলের হাওয়া

অবশেষে কাউন্সিল হচ্ছে বরিশাল জেলা মহানগর বিএনপির। তিন বছরের জন্য ঘোষিত কমিটি ৫ বছর সময় পার করলেও তার কোন পরিবর্তন হয়নি। কিন্তু জাতীয় কাউন্সিলের সময় নির্ধারন হবার পর কাউন্সিলের মাধ্যমে বরিশাল বিএনপির কমিটি করার ঘোষণা দিয়েছে কেন্দ্রীয় কমিটি। এমন তথ্য বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে পাওয়া। আর কাউন্সিলে বরিশাল বিএনপিতে ব্যাপক পরিবর্তন হবে বলেও জানিয়েছে একাধিক নির্ভরযোগ্যসূত্র।

আগামী ১৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল। এ কাউন্সিলের পূর্বেই দেশের সকল ইউনিট কমিটি পূনর্গঠন করার ঘোষণা দিয়েছে কেন্দ্র। বরিশাল জেলা-মহানগর বিএনপিকে পূনর্গঠন বিষয়ে একাধিকবার চিঠিও দিয়েছে। কিন্তু তাতে কোন কাজ হয়নি। সিকি পরিমাণও পূনর্গঠন হয়নি বরিশাল বিএনপির।

এ কারণে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি বাতিল করে নতুন করে কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপি। আর কাউন্সিল সরাসরি মনিটরিং করবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কাউন্সিলের সময় নির্ধারন করে  দিবেন তিনি। কাউন্সিলের দিন বরিশালে উপস্থিত থাকবেন বলে বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তর থেকে জানা গেছে।

বরিশাল বিএনপির দেয়া তথ্যানুসারে, ২০১০ সালের নভেম্বর মাসে বরিশাল জেলা (উত্তর ও দক্ষিন) ও মহানগর বিএনপির কমিটি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু ২০১৩ সালের নভেম্বর মাসে জেলা দক্ষিণ বিএনপির কমিটি বাতিল করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। তবে মহানগর ও উত্তর জেলা বিএনপির কমিটির কোন পরিবর্তন হয়নি। দুই বছর পূর্বে এ দুটি কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে যায়। কিন্তু দক্ষিণ জেলা বিএনপির কমিটির মেয়াদ চলতি বছরের নভেম্বর মাসে শেষ হবে। এরপরও ওই কমিটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা না করতে পারায় এখানেও কাউন্সিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় বিএনপি।

কেন্দ্রীয় বিএনপির এক শীর্ষ নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, বরিশাল বিএনপিকে নিয়ে কিছু বিতর্ক রয়েছে। তাই এখানকার বিষয়টি চেয়ারপার্সন নিজেই নিয়ন্ত্রণ করছেন। তবে সার্বিক বিষয়ে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে। তিনিই কাউন্সিলের দিনক্ষন ঠিক করে নিজে উপস্থিত থেকে সম্পন্ন করবেন।

উত্তর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান জানান, আমরা দল পূনর্গঠন কার্যক্রম অনেকাংশে শেষ করেছি। এখন কেন্দ্র সময় বেধে দিলেই কাউন্সিল করা যাবে।

দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম শাহীন বলেন, আমাদের কমিটির মেয়াদ রয়েছে। আমরা কেবল পূর্নাঙ্গ কমিটি করবো। এরপর তা কেন্দ্রে পাঠালেই তা অনুমোদন দেয়া হবে। তবে কেন্দ্র চাইলে কাউন্সিল করতে পারে। এ বিষয়ে আমাএদও কোন দ্বিমত নেই।

বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও বরিশাল মহানগর সভাপতি এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, বরিশাল মহানগর ও উত্তর জেলা বিএনপির কমিটির মেয়াদ নেই। তবে দক্ষিণ জেলা বিএনপির কমিটির মেয়াদ থাকলেও তারা ২ বছরে পূর্নাঙ্গ কমিটি করতে পারেনি। তাই কেন্দ্র তাদের বার বার তাগিদ দিয়েছে। আর জাতীয় কাউন্সিল করার পূর্বে এ তিনটি ইউনিটের কাউন্সিল হবে। কেন্দ্র যেভাবে কাউন্সিল করবে সেভাবে তা অনুষ্ঠিত হবে। আমরা পূনর্গঠনের কাজ করছি। শিঘ্রই তা সম্পন্ন হবে। এরপর কাউন্সিলে কোন বাধা থাকবে না।

 

উপরে