আপডেট : ২৫ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৪:২৮

শৈলকুপায় দু-দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ১৫

অনলাইন ডেস্ক
শৈলকুপায় দু-দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত ১৫

ঝিনাইদহে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

সোমবার সকালে শৈলকুপায় উপজেলার শেরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে পুলিশ সদস্য ছাড়া অন্যদের নাম জানা যায়নি। আহতরা স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

পুলিশ সদস্যরা হলেন, এএসআই সুনীল কুমার, কনস্টেবল মাইনুদ্দিন ও গঞ্জেল আলী।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার রূপদাহ গ্রামের এক কৃষক পার্শ্ববর্তী কুশাবাড়িয়া গ্রামের এক দিনমজুরকে ক্ষেতে পিঁয়াজ লাগানোর জন্য সোমবার দিন ঠিক করে দেন। ওই দিনমজুর কাজে না আসায় উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর জের ধরে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার শেরপুর গ্রামের বাজারে দুই দল গ্রামবাসী লাঠিসোঁটা ঢাল-সড়কি, রামদাসহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

পরে সংঘর্ষ উপজেলার ধলহরা চন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা মতিয়ার রহমান এবং বগুড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম গ্রুপের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

সংঘর্ষ চলাকালে আওধা বাজারের অন্তত ১৮টি দোকান ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করা হয়। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হন। আহতদেরকে শৈলকুপা ও ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৭৬ রাউন্ড শটগানের গুলিবর্ষণ করে পুলিশ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

উপরে